• ঢাকা
  • শনিবার, ১৬ নভেম্বর, ২০১৯, ২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ২১, ২০১৯, ০৭:৫০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ২১, ২০১৯, ০৭:৫০ পিএম

গ্রামীণফোনের সালিশকারী নিয়োগের আবেদন খারিজ

জাগরণ প্রতিবেদক
গ্রামীণফোনের সালিশকারী নিয়োগের আবেদন খারিজ

সালিশকারী নিয়োগ চেয়ে হাইকোর্টে একটি আবেদন করেছিল গ্রামীণফোন।

সোমবার (২১ অক্টোবর) ওই আবেদন খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট।

আইনজীবীরা বলছেন, এ কারণে এখন গ্রামীণফোনের সঙ্গে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) কোনও সালিশ হবে না।

বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেয়।

আদালতে গ্রামীণফোনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শরীফ ভূঁইয়া ও তানিম হোসেইন শাওন। বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার খন্দকার রেজা-ই-রাকিব।

আদালতের আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ব্যারিস্টার খন্দকার রেজা-ই-রাকিব।

আইনজীবী শরীফ ভূঁইয়া বলেন, ১৯৯৬ সালে গ্রামীণফোন যখন ইনভেস্ট করে তখন একটা আরবিট্রেশন ক্লজ ছিল। পরে বিটিআরসি একতরফাভাবে আরবিট্রেশন ক্লজটা বাতিল করেছিল। গ্রামীণফোনের পজিশন হচ্ছে, তারা (বিটিআরসি) একতরফাভাবে বাতিল করতে পারে না।

তিনি বলেন, অডিট নিয়ে বিরোধটা সালিশের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করতে হবে। সালিশকারী নিয়োগের জন্য একটা দরখাস্ত করেছিল গ্রামীণফোন। আদালত আদেশ দিয়েছেন বিটিআরসি যে সালিশের ক্লজটা বাদ দিয়েছিল সেটা বৈধ। এখন কোনও সালিশ চুক্তি নাই। কাজেই কোনও সালিশ হবে না।

এমএ/এসএমএম

আরও পড়ুন