• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭
প্রকাশিত: নভেম্বর ১৯, ২০১৯, ০১:৫৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ১৯, ২০১৯, ০২:৫০ পিএম

মেয়াদোত্তীর্ণ ৩৪ কোটি টাকার ওষুধ ধ্বংস

জাগরণ প্রতিবেদক
মেয়াদোত্তীর্ণ ৩৪ কোটি টাকার ওষুধ ধ্বংস

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে দুই মাসে ৩৪ কোটি ৭ লাখ ৬৯ হাজার ১৪৩ টাকার মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ধ্বংস করা হয়েছে। এই সময়ে ১৩ হাজার ৫৯৩টি ফার্মেসি পরিদর্শন করে ৫৭২টির মামলাও করা হয়েছে।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের দাখিল করা এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়। মঙ্গলবার (১৮  নভেম্বর) প্রতিবেদনের ওপর বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানি হয় ।

এতে বলা হয়, এই সময়ে মেয়াদোত্তীর্ণ ও নকল ভেজাল ওষুধ সংরক্ষণের দায়ে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১ কোটি ৭৪ লাখ ৯৩ হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

আদালত পরবর্তী আদেশের জন্য ১২ ডিসেম্বর দিন ঠিক করেছেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এবিএম আলতাফ হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এবিএম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী কামরুজ্জামান কচি। বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক।

এর আগে হাইকোর্টের এক নির্দেশে সারাদেশে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সংরক্ষণ ও বিক্রি বন্ধ এবং ওষুধ প্রত্যাহার/ধ্বংস করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। ওই আদেশের ধারাবাহিকতায় ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর আদালতে প্রতিবেদন দেন।

এমএ/টিএফ 
 

আরও পড়ুন