• ঢাকা
  • রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: মার্চ ১৪, ২০১৯, ০৪:৪৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ২৪, ২০১৯, ১২:২৭ এএম

সুস্থ থাকতে খাবার গ্রহণ সংক্রান্ত যেসব বিষয় মেনে চলা উচিত

আছিয়া পারভীন আলী শম্পা
সুস্থ থাকতে খাবার গ্রহণ সংক্রান্ত যেসব বিষয় মেনে চলা উচিত

 

প্রতিদিন এবং প্রতি বেলায় সুষম এবং পুষ্টিকর খাবার গ্রহণের ব্যাপারে সচেতন হোন। নিয়মিত সকালের নাস্তা করুন, সকালের নাশতা বাদ দেয়া ডায়াবেটিস রোগের অন্যতম একটি কারণ। সকালে নাশতা বাদ দিলে সুগারের মাত্রা ওঠানামা করে। আর যাদের ডায়াবেটিস নেই তাদের ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। 

প্রতিদিন একই পরিমাণে এবং একই সময়ে খাবার গ্রহণ করার চেষ্টা করুন।

খাবার খুব ভালভাবে চিবিয়ে খান।

খাবার খাওয়ার সময় তাড়াহুড়ো বা খুব দ্রুত খাবার খাবেন না। ধীরে ধীরে অন্তত ২০ মিনিট ধরে বড় মিলগুলো অর্থাৎ (ব্রেকফাস্ট, লাঞ্চ এবং ডিনার) খাবেন।
কোনো বেলার খাবার বাদ দিবেন না।

একবারে বেশি না খেয়ে সারাদিনের খাবারকে ৫-৬টি মিলে ভাগ করে নিন।

খাবার গ্রহণের ৩০-৪৫ মিনিট পূর্বে ২ গ্লাস অর্থাৎ ৪০০ এমএল কুসুম গরম পানি পান করুন।

খাবার গ্রহণের মাঝে খুব বেশি পানি পান করবেন না। খাবার গ্রহণের ৩০-৪৫ মিনিট পরে পানি পান করুন, এতে হজম প্রক্রিয়া ভালো হয়। 

প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় পর্যাপ্ত পরিমাণে বিভিন্ন রঙের শাকসবজি এবং ফলমূল রাখুন।

খাদ্য তালিকায় প্রবায়োটিকস সমৃদ্ধ খাবার রাখুন। প্রোবায়োটিকস একটি ভালো ব্যাকটেরিয়া। এটি হজমে সাহায্য করে এবং যাদের ডায়াবেটিস আছে তাদের রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। দই প্রোবায়োটিকসসমৃদ্ধ খাবার।

চাষ করা মাছ-মুরগীর পরিবর্তে সম্ভব হলে দেশি মাছ এবং মুরগী খান।

সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিদিন ১০-১৫ গ্রাম লবণবিহীন বাদাম খান।

মিলে ছাঁটা সাদা চাল, ময়দার রুটির পরিবর্তে লাল আটা, লাল চাল, গোটা শস্য গ্রহণ করুন। 

বাদামি আটা, বাদামি চাল (নন পলিসড) অর্থাৎ লো জিআই খাদ্য গ্রহণ করুন।

খাদ্য তালিকায় প্রতিদিন কিছুটা হলেও ভিটামিন-ডি সমৃদ্ধ খাবার যেমন- সামুদ্রিক মাছ, দই, দুধ, ডিম, মাশরুম, পনির রাখুন।

সচেতন হোন এবং সুস্থ থাকুন।

লেখক : পুষ্টিবিদ, বেক্সিমকো ফার্মা লিমিটেড
 

এফসি