• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন, ২০১৯, ১৪ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুন ১, ২০১৯, ০৬:৩৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১, ২০১৯, ০৬:৩৬ পিএম

ঈদের দিনে কাজের ভিড়ে নারীরা সুস্থ থাকবেন যেভাবে

আছিয়া পারভীন আলী শম্পা
ঈদের দিনে কাজের ভিড়ে নারীরা সুস্থ থাকবেন যেভাবে

 ঈদ মানে খুশি,ঈদ মানে আনন্দ। তবে  নারীদের ঈদ যেন একটু অন্যরকম।বাড়ির অন্য সবাই যখন ঈদের খুশিতে আত্মহারা,ঠিক তখন গৃহকর্ত্রীর কাজের চাপে একেবারে দিশেহারা অবস্থা। পরিবারের অন্য সবাই রমজানের পর যখন নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন তখনও গৃহকর্ত্রীর ছুটি নেই কিংবা নিজের দিকে তাকানোর ফুসরত নেয়। রমজানের কাজের ধারাবাহিকতার পর ঈদের দিন শুরু হয়,দিন ব্যাপী রান্না বান্নার এলাহী আয়োজন আর অন্যান্য কাজের ফর্দ তো আছে।ঈদের দিন রান্নাবান্না,অথিতি আপ্যায়ন,ধোঁয়া মোছা সব কিছু সামলে যেন গৃহকর্ত্রীরা সুস্থ থাকতে পারেন সেজন্য আজকের আয়োজন।

• ঈদের দিন সকালে অবশ্যই হালকা কিছু খেয়ে রান্না ঘরের কাজ শুরু করবেন। কারন সারাদিনের কাজের চাপ সামলানোর জন্য নিজেকে সকাল থেকে প্রস্তুত করার বিকল্প নেই।
• হাতের কাছে পানির বোতল,জুস এবং ডাবের পানি রাখবেন।কাজের ফাঁকে ফাঁকে একটু একটু করে পানি বা জুস খেতে ভুলবেন না। মনে রাখবেন,প্রচন্ড গরমে কাজের মাঝে সুস্থ থাকতে চাইলে পানি এবং পানীয় পানের বিকল্প নেই।
• নিজেকে হাইড্রেট রাখতে একটু পর পর পানি,লাচ্ছি বা যেকোন স্বাস্থ্যসম্মত পানীয় পান করুন। মনে রাখবেন,চুলার উত্তাপে ঘেমে যাবার ফলে খুব দ্রুত ইলেকট্রোলাইটস লস হবার সম্ভাবনা থাকে আর তা যদি যথাযথ ভাবে পূরণ করা না হয় তবে,দুর্বলটা,প্রচণ্ড মাথা ব্যথা বা তীব্র অবসাদে আছন্ন হয়ে পড়তে পারেন।
• রান্না ঘরের পরিবেশ কিছুটা ঠাণ্ডা রাখার জন্য রান্নার সময় এগজস্ট ফ্যান চালিয়ে রাখুন। তাহলে,রান্না ঘরের গরম বাতাস বা ধোঁয়া সহজে বের হয়ে যেতে পারবে।

 


• যেহেতু,প্রচন্ড গরমের মাঝে সারাদিন রান্না ঘরে কাটানোর সম্ভাবনা বেশি তাই,হাতের কাছে ছোট একটা চার্জার ফ্যান রাখতে ভুলবেন না। তাহলে কিছুটা হলেও গরমে স্বস্তি পাবেন।
• একটা বিষয় খেয়াল রাখবেন,ঘেমে গেলে ঘাম অবস্থায় বেশিক্ষণ থাকবেন না একটা পরিষ্কার সুতি কাপড় ভিজিয়ে ভালোভাবে চেপে নিয়ে শরীর মুছে নেবেন।ঘাম যেন,শরীরে শুকিয়ে না যায়। তাহলে ঠাণ্ডা লেগে যাবার সম্ভবনা বেশী।
• অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি খাবেন না। অর্থাৎ ফ্রিজ থেকে পানি বের করে সাথে সাথে খাবেন না।
• যাদের মাইগ্রেনের সমস্যা রয়েছে তারা সকালে নাস্তার ৩০ মিনিট পর আঙ্গুর, মাল্টা বা লেবুর শরবত খেয়ে নেবেন। তাহলে,সারাদিন আর মাথা ব্যথার সমস্যায় ভুগবেন না।


• যারা লো ব্লাড প্রেশারে ভুগছেন তারা কাজের ফাঁকে একটা ওর সাল্যাইন খেয়ে নেবেন দুর্বলতা কেটে যাবে। পাশাপাশি,পর্যাপ্ত পানি খান।
• যাদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা আছে তারা ঈদের দিন এক কাপ ডাবের পানি এবং একটা কলা খেতে ভুলবেন না। 
• প্লেট বাটি ধোয়ার সময় হাতে গ্লাভস পরে নেবেন তাতে হাতের ক্ষতি কম হবে।
• ঈদের দিন এমনিতে পানির কাজ অনেক বেশি থাকে তাই হাতের আঙুলের মাঝে পানি লেগে ইনফেকশন হতে পারে তাই ধোঁয়া মোছার কাজ শেষে আঙুলের মাঝে ভালোভাবে মুছে নিন।
• সব কাজের শেষে,পানিতে লেবু দিয়ে সেই পানি দিয়ে গোসল করুন।চাইলে কিছুক্ষণ পানিতে পা ভিজিয়ে রাখতে পারেন ফ্রেশ লাগবে।

লেখক: পুষ্টিবিদ,বেক্সিমকো ফার্মা।    


 

Space for Advertisement