• ঢাকা
  • রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১১ আশ্বিন ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০২১, ১১:১৯ এএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২২, ২০২১, ০৮:৩৯ এএম

বিমানের জানালা গোলাকৃতির হয় কেন?

বিমানের জানালা গোলাকৃতির হয় কেন?

বিমান ভ্রমণে গেলে জানালার পাশের আসনটিতেই বসতে চান বেশিরভাগ মানুষ। কারণ তাহলে আকাশ থেকে পৃথিবীটাকে দেখার সুযোগ পাওয়া যায়। নেওয়া যায় মেঘের মধ্যে ভেসে বেড়ানোর অনুভূতি। কিন্তু কখনো কী লক্ষ্য করে দেখেছেন বাড়িঘর বা সড়কে চলাচলকারী যানবাহন সকল কিছুর জানালা চারকোনা হলেও বিমানের জানালা হয় গোল। সাধারণ যাত্রীবাহী বিমান থেকে শুরু করে যুদ্ধবিমান সব জায়গায় এই একই আকৃতি। কেন এই অপরিবর্তন তা কী কখনো ভেবে দেখেছেন?

প্রতিনিয়ত আধুনিকতার ছোঁয়ায় উড়োজাহাজ শিল্পে ব্যাপক পরিবর্তন ও বৈচিত্র্য এলেও জানালা রয়ে গেছে সেই আগের মতোই গোল। না, জানালার প্রতি বিজ্ঞানীদের অবহেলা নয়, বরং যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে বিশেষ এক কারণে বদলানো হয়নি জানালার আকৃতি। চলুন জেনে নেয়া যাক সেই বিশেষ কারণটি।

উড়োজাহাজ যখন আবিষ্কার হয় তখন এতে কোনো জানালাই ছিল না। চালক ও যাত্রীদের কক্ষের উপরের দিক ছিল একেবারেই খোলা। কিন্তু এতে ঝড়, বৃষ্টিসহ বিভিন্ন সমস্যায় পড়তেন আরোহীরা। পরবর্তীতে বিমানের অনাবৃত অংশ ঢেকে দিয়ে সেখানে চারকোনা জানালা বসানো হয়। এভাবে বেশ কয়েক বছর ভালোই চলছিল। কিন্তু সমস্যা দেখা দেয় ১৯৫৩ সালে।

ওই বছর দুটি ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা ঘটে। এতে মারা যান ৫৬ জন যাত্রী। এই দুর্ঘটনা দুটির কারণ অনুসন্ধান করতে গিয়ে বিজ্ঞানীরা দেখতে পান, এর পেছনে দায়ী বিমানের চারকোনাকৃতির জানালা। বিমান আকাশে ওড়ার সময় বাতাসের চাপ সৃষ্টি হয় তখন এর অধিকাংশ প্রভাব পড়ে জানালার চারটি কোনার ওপর। শুরুতে কোনো সমস্যা না হলেও ধীরে ধীরে জানালার কোনাগুলো দুর্বল হয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞানীরা এর সমাধান হিসেবে বের করেন গোলাকৃতির জানালা। কারণ জানালা গোল হলে উড়ার সময় বায়ুর চাপ জানালার পুরোটাতে সমানভাবে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে ভেঙ্গে যাওয়ার আশংকা থাকে না। এরপর থেকেই বিমানের জানালার এই অপরিবর্তন।