• ঢাকা
  • বুধবার, ১৯ জুন, ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুন ৪, ২০১৯, ০৪:২৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ৪, ২০১৯, ০৪:৩৫ পিএম

নিগার শামীমার কবিতা

.
নিগার শামীমার কবিতা
কবি নিগার শামীমা

বিবর্ণ রঙ
আমাদের বিবর্ণ রঙ খেলায় 
আজো হলুদের গন্ধ 
গায়ের গন্ধ মুছে যায় যাক 
তবু আমরা রঙ খেলি 
যে রঙ বড় অচেনা ও অজানা। 
আকাশের ঘুমটা ভাঙতেই 
জোছনা উড়াল দেয় দখিনা নদীর টানে 
আমারও ঘুম ভাঙে 
অলস দুপুর আর তিক্ততা মাখা
অনেকগুলো বিকেল কেটে গেছে,
আমরা পাশাপাশি মাখামাখি
তবু জীবনের নামে 
এক আকাশ স্বপ্নকে লিখে চলেছি 
কেবলই নক্ষত্রময় পথযাত্রায়
আর পথ খুঁজি না, 
ভাবছো আলো বুঝি নিভে গেছে
আঁধারের বাঁকে?

জীবননামা 

উঠে এসো রাত মখমলের বিছানা ছেড়ে 
আমি এখন কান্না জড়িত কণ্ঠে
অনেক গান করি 
শোক করি 
কখনো-
কখনো কাউকে সাবধান করি,
নিজের প্রকম্পিত দেহ ছেড়ে উঠে দাঁড়াই 
নিজের জানাজার মতো ভারী 
আমার কাঁধে এখন 
আমারই লাশ 
আমি মৃত্যুকে লিখে রাখি 
পাঠশালার মতো ক্লাশঘরে
ঢুকে মৃত্যুকে পাঠ করি
দেখি আমার 
অলিখিত জীবন, 
যেখানে যাপন করি অসংখ্য কাঁকর বিছানো রাত
সাদা আলপিন বুকের উপর বসে 
আমাকে ভেদ করে হৃদয়-
ছুঁয়ে যায়,
দেখি-
এ এক অদেখা আলপনা 
যার অনেক রঙ 
অথচ সাদাকালো পথটা এখন আরো রঙিন,
এসো রাত মায়াবী জোছনার চাঁদর ছিঁড়ে
লিখে রাখি জোনাকির একঘেঁয়ে দিন! 
উঠে এসো 
এক স্বপ্নে একাকী..

তোমাকে লিখি পরের জীবননামায়
তোমাকে লিখি আর কাউকে নয়। 

চিনে রাখি

চিনে রাখি তোমাদের সকল লেনদেন
জেনে রাখি অকারণ দামদর  
চিনে রাখি সব বদনাম, 
জানি যেদিন আমাকে পেয়ে যাবে 
চৈত্রের ভাঁটফুল মনে করে 
ছিঁড়ে নেবে আমাকে 
এই পৃথিবীতে আটকে থাকা বোটা থেকে।
চিনে রাখি তোমাদের মায়ের চিহ্ন 
চিনে রাখি তোমাদের প্রবেশদ্বার
আর চিনে রাখি তোমাদের প্রথম পরিচয়,
তোমরা মানুষের মতো ;
মানুষ তো নও ; 
একটা জোনাকি পোকা ভেবে 
হয়তো তুলে নেবে রাতের আঁধারে, 
চিনে রাখি 
তোমাদের জন্মদাগসহ আত্মা 
তোমাদের রঙ খেলায় 
আমাকে কোনোদিনই পাবে না, 
আমি পরাজিত নই 
হেরে যাওয়াও নই 
আমি সত্যের উপর 
বরং সত্য আরেক সুন্দর। 
চিনে রাখি তোমাদের আবরণ 
চিনে রাখি তোমাদের বসন
চিনে রাখি তোমাদের মারাত্মক পারফিউম 
চিনে রাখি সুগন্ধির আড়ালে 
তোমাদের পঁচে যাওয়া মন..


কথা অকথা

আমাকে আর করুণা করো না
আমি এ কঠিন করুণা চাই না
আমি তো বারবার হেরে যাওয়া
ভাষাহীন এক বোবা প্রেমের কথা।

আমাকে আর কামনা করো না
আমি এ নিষ্ঠুর কামনা চাই না
আমি তো বারবার ছুটে যাওয়া
অস্থির উদাসীন নিষেধের হাওয়া।

আমাকে আর অপমান করো না
আমি এ অযথা অপমান চাই না
আমি তো বারবার আঘাত পাওয়া
এ-জীবনের নির্মম এক অবহেলা।

আমাকে আর অযথা সৃষ্টি করো না
আমি এ নির্মম ভাঙ্গাচূড়া চাই না
আমি তো বারবার ফিরে ফিরে আসা
অযাচিত নামহীন কোন এক যন্ত্রণা।

আমি এক অচল-সচল চিরবিধান 
যার আরেক নাম কথার অভিধান
জোর করে ভালোবাসা চেয়ো না
আমার কথা যা তুমি তা শোনো না।
..
 

Space for Advertisement