• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১০ জুলাই, ২০২০, ২৫ আষাঢ় ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০, ০৩:৩৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০, ০৩:৩৯ পিএম

বইমেলায় বিপ্লব সাইফুলের ‘মানুষনদী’

জাগরণ প্রতিবেদক
বইমেলায় বিপ্লব সাইফুলের ‘মানুষনদী’
বিপ্লব সাইফুল (ইনসেটে) ও তার কবিতার বই ‘মানুষনদী‍‍`র প্রচ্ছদ - ছবি : জাগরণ

‘মানুষ ভীষণ একা হয়ে গেছে, সমুদ্রে জেগে থাকা দ্বীপের মতো একা। খেয়া পড়ে আছে কখন ভাঙনের নদী পার হয়ে মানুষ ঢুকে গেছে যে যার ব্যক্তিগত গুহায়!'

কবি বিপ্লব সাইফুল এভাবেই কবিতায় বাজিয়েছেন মানুষের একাকীত্বের সুর। এবারের একুশে গ্রন্থমেলায় তিনি নিয়ে এসেছেন কবিতার বই ‘মানুষনদী'। বইটি বাংলা জার্নালের স্টলে পাওয়া যাচ্ছে। স্টল নম্বর ৫৩৩।

বিপ্লব সাইফুল জীবনে কবি, যাপনেও। তার জন্মই যেনো কবিতাকে যাপনের জন্য। তিনি জীবনকে উড়িয়ে দিতে পারেন দ্বিধাহীন।

বিপ্লব সাইফুলের জন্ম ৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৮ বিক্রমপুরের ইছামতী নদীর কূলে ছোট গ্রাম কমলপুরে। শৈশব-কৈশোরের শুরুটা ইছামতীর মৌন ছলাৎ ছলাৎ আর কমলপুর গ্রামের সবুজ নির্জনতা, নিজের অজান্তেই সত্তার সঙ্গে সখ্য। ভালোলাগে নিজেকে উড়ানো-পোড়ানো আর অন্ধকার নির্জনতা। জীর্ণ জীবনের পুঁজে যারা খুঁজে নেয় নিষিদ্ধ আঁধার’- বিপ্লব সাইফুল তাদের দেখেন দেবীর আসনে ।

তার প্রকাশিত গ্রন্থ- নিঃসঙ্গতার দ্বীপ (কবিতা), যুবতী মেঘ হও (কবিতা), হিরন্ময়ে রাত্রি লাল দালান ফইক্কা ও অন্যান্য গল্প (গল্প), একটি খুন ও কমলাকাহন (গল্প), খোয়ারি (কবিতা), দ্বিধাহীন পান করি বিষের মরণ (কবিতা), সারারাত পাহাড় এবং আমি (কবিতা), যেদিন যাই নীরবেই যেনো যাই (কবিতা), জন্মান্ধ বাঁশিওয়ালা (কবিতা) ।

এইচএস/ এফসি