• ঢাকা
  • রবিবার, ২৬ মে, ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০১৯, ১২:০০ এএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২২, ২০১৯, ০৫:০৭ পিএম

শ্রীলঙ্কায় সিরিজ বিস্ফোরণ

আহত শেখ সেলিমের নাতি জায়ান আর নেই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আহত শেখ সেলিমের নাতি জায়ান আর নেই

না ফেরার দেশে চলে গেলো ছোট্ট জায়ান।  বর্বরোচিত শ্রীলঙ্কা সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে দুই শতাধিক ব্যক্তির হতাহতের ঘটনার পর দেশটিতে অবস্থিত বাংলাদেশি দূতাবাসের বরাতে এক শিশুসহ দুজন বাংলাদেশি নাগরিকের নিখোঁজ থাকার তথ্য পাওয়া যায়।  

পরে রোববার (২১ এপ্রিল) রাতে তাদের খোঁজ মেলে। তারা হলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ে শেখ সোনিয়ার স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স ও তার জেষ্ঠ্য নাতি জায়ান চৌধুরি। 

এ প্রসঙ্গে কলম্বোয় নিযুক্ত বাংলাদেশি দূতাবাসের এক প্রশাসনিক কর্মকর্তা মুঠোফোনে দৈনিক জাগরণের আন্তর্জাতিক বার্তা ডেস্ককে জানান, এ বিষয়ে এখনো পর্যন্ত কোনো খবর তারা জানাতে অনিচ্ছুক।  তবে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান যে, শেখ সেলিমসহ তার পরিবারের সদস্যরা কলম্বোর উদ্দেশ্যে রওনা করছেন।

আর কোনোদিন পরিবারের সাথে এভাবে হাসি মুখে দেখা যাবে না ফুটফুটে জায়ানকে (লাল বৃত্ত চিহ্নিত) - ছবি: তারেক সালমান

এদিকে শেখ সেলিমের ব্যক্তিগত সহকারী ইমরুল হক দৈনিক জাগরণ প্রতিবেদককে জানান যে, গুরুতর আহত পিতা-পুত্র সেখানে একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। পরে সেখানেই জায়ানের মৃত্যু হয়। 

তিনি আরও জানান, আজ রাতেই কলম্বোর উদ্দেশ্যে রওনা হচ্ছেন নিহতের পরিবারের সদস্যরা। পারিবারিক সূত্রের বরাতে জানা যায়, পরবর্তীতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ঘটনার বিস্তারিত জানানো হবে। 

ইমরুল হক জানিয়েছিলেন, ঘটনার পর শেখ সেলিম মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্সের সঙ্গে কথা বলেছেন।  তারা হাসপাতালে ডাক্তারের পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্যে আছেন। তাদের অবস্থা সম্পর্কে পরে জানা যাবে বলে জানান ইমরুল হক।  আর তার কিছু সময় পরেই পাওয়া যায় এই দুঃসংবাদ।

এর আগে ব্রুনাইয়ের দারুসসালামে প্রবাসী বাংলাদেশিদের এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,  ‘শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ের পরিবার শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলার শিকার হয়েছে। সেলিমের মেয়ে-জামাই ও নাতি এ সময় একটি রেস্টুরেন্টে খাচ্ছিলেন। সেখানে একটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে মেয়ে-জামাই আহত হন এবং বিকাল পর্যন্ত নাতির কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি।’

রোববার (২১ এপ্রিল) সকালে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে রাজধানী কলম্বো ও তার আশপাশের তিনটি গির্জা এবং তিনটি হোটেলসহ বেশ কয়েকটি স্থাপনায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে এখন পর্যন্ত ২১৫ জন নিহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।  আহত হয়েছেন অন্তত ৪৫০ জন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।  দ্য ইকোনোমিস্ট টাইমস

টিএস/এসকে

Space for Advertisement