• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ২২, ২০১৯, ০২:১৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২২, ২০১৯, ০৯:৩৯ পিএম

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় শেখ সেলিমের জামাতা গুরুতর আহত 

জাগরণ প্রতিবেদক 
শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় শেখ সেলিমের জামাতা গুরুতর আহত 
মা-বাবার সঙ্গে নিহত জায়ান

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলায় গুরুতর আহত শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ে জামাতা মশিউল হক কলম্বোর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।তার অবস্থা খুবই গুরুতর। 

এ বিষয়ে সাবেক মন্ত্রী  ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার  মোশাররফ হোসেন জানিয়েছেন, ‘শেখ সেলিমের মেয়ের জামাতা খুব বাজে অবস্থায় আহত হয়েছেন। তার দুটো পা অকেজো হয়ে গেছে।কমপক্ষে দুই সপ্তাহের আগে তাকে হাসপাতাল থেকে সরানো যাবে না।’ 

সোমবার (২২ এপ্রিল)সকালে শেখ সেলিমের বাসায় যান ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সাবেক সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর, সাবেক নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানসহ আওয়ামী লীগের অসংখ্যা নেতাকর্মী।
 
শেখ সেলিমের বাসা থেকে বের হয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘শেখ সেলিমের মেয়ের জামাতা খুব বাজেভাবে আহত হয়েছেন। তার দুটো পা অকেজো হয়ে গেছে। কমপক্ষে ১৫ দিন না গেলে তাকে হাসপাতাল থেকে সরানো যাবে না।’ তিনি বলেন, ‘ব্রেকফাস্ট করার জন্য মেয়ে জামাতা এবং তার নাতি জায়ান চৌধুরী একটি হোটেলে গিয়েছিলেন। হোটেলের নিচেই আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে জায়ান নিহত হয়।’

জানা গেছে, জায়ানের মরদেহ দেশে আনতে এই মুহূর্তে শ্রীলঙ্কায় অবস্থান করছেন শেখ সেলিমের স্ত্রী এবং দুই ছেলে শেখ ফজলে ফাহিম ও শেখ ফজলে নাঈম। জায়ান চৌধুরী সোমবার শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণে নিহত হয়। মশিউল হক চৌধুরী সপরিবারে কলম্বোতে ঘুরতে গিয়েছিলেন। জানা গেছে, শেখ সেলিমের ছেলে শেখ ফাহিম প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হয়ে ব্রুনাই গিয়েছিলেন। সেখান থেকে শ্রীলঙ্কা গেছেন। অপর ছেলে শেখ নাইম তার মাকে সঙ্গে নিয়ে শ্রীলঙ্কা পৌঁছেছেন।

শ্রীলঙ্কায় এ ভয়াবহ সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৫০০ জন। সোমবার সকালে পুলিশের মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকারা হতাহতের এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে রোববার রাতে ২০৭ জন নিহতের খবর দিয়েছিলো পুলিশ।

এএইচএস/বিএস