• ঢাকা
  • বুধবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭
প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০১৯, ০৪:২৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১৫, ২০১৯, ০৪:২৩ পিএম

ফের হুথিদের ড্রোন হামলায় আক্রান্ত সৌদি বিমানবন্দর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ফের হুথিদের ড্রোন হামলায় আক্রান্ত সৌদি বিমানবন্দর

সৌদি আরবের আবহা বিমানবন্দরে আবারও ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইয়েমেন সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীরা। গত শুক্রবার (১৪ জুন) স্থানীয় সময় ভোরে চালানো এ হামলায় এখনও কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। চলতি সপ্তাহে এ নিয়ে বিমানবন্দরটিতে পরপর দুইবার হামলা চালিয়েছে ইয়েমেন। এমনটাই দাবি করেছে বার্তা সংস্থা এসপিএ।

এ দিকে শনিবার (১৫ জুন) সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক বাহিনীর একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, ‘শুক্রবার ভোরে কাসিফ-২কে মডেলের মোট পাঁচটি ড্রোন প্রতিহত করা হয়। হামলার পর বিমানবন্দরের কার্যক্রম আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।’

এর আগে গত বুধবার (১২ জুন) সৌদির আবহা বিমানবন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছিল হুথি বিদ্রোহীরা। এতে শেষ খবর পর্যন্ত ২৬ জন আহত হন। পরে একই দিন হুথি নিয়ন্ত্রিত ‘আল মাসিরাহ’ টেলিভিশনের খবরে জানানো হয়, একটি ক্রুজ মিসাইল দিয়ে এই হামলাটি চালানো হয়।

তবে প্রাথমিকভাবে এই হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করা না হলেও পরদিন রিয়াদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীদের চালানো দুটি ড্রোন হামলা এরই মধ্যে প্রতিহত করা হয়েছে।

সৌদির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ‘এসপিএ’ জানায়, ইয়েমেনের রাজধানী সানাসহ বৃহৎ একটি অঞ্চলের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রয়েছে হুথিদের দখলে। গত সোমবার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় খামিস মুসাইত এলাকা থেকে ছোড়া দুটি ড্রোন হামলা প্রতিহত করতে সক্ষম হয়েছে সৌদির বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী। তবে এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

সূত্র মতে, হুথি বিদ্রোহীদের দাবি, তারা খামিস মুসাইতের নিকটবর্তী কিং খালিদ বিমানঘাঁটিকে লক্ষ্য করে হামলাটি চালিয়েছে। তবে ড্রোন দুটি সেই লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার আগেই এগুলোকে ভূপাতিত করা হয়।

২০১৪ সালে ব্যাপক সংঘর্ষের মাধ্যমে ইয়েমেনের রাজধানী সানা দখলের পর সৌদি সমর্থিত ইয়েমেনি প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদিকে ক্ষমতা থেকে অপসারণ করেছিল হুথি বিদ্রোহীরা। মূলত এরপর থেকেই দেশের বাইরে অবস্থান করছেন তিনি। পরবর্তীতে তাকে ক্ষমতায় পুনর্বহালের জন্য ২০১৫ সালের জুন মাসে গোটা ইয়েমেন জুড়ে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে হামলা শুরু করে সৌদি নেতৃত্বাধীন আরব জোট।

বিশ্লেষকদের মতে, এবার এসবের প্রেক্ষিতেই সৌদির বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালাচ্ছে হুথি বিদ্রোহীরা। ইয়েমেনের এই বিদ্রোহী গোষ্ঠীটির দাবি, তারা ইয়েমেন, সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের অন্তত তিন শতাধিক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাকে লক্ষ্য করে চালানো হামলাগুলো অব্যাহত রাখবে।