• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১৫ মাঘ ১৪২৭
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯, ০৮:০৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯, ০৮:০৬ পিএম

‍‍গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের দায়ভার আওয়ামী লীগ নেবে না‍‍ : কাদের

‍‍গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের দায়ভার আওয়ামী লীগ নেবে না‍‍ : কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের-ফাইল ছবি

শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন উদযাপন

............................

● দুর্নীতির বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার লড়াই অব্যাহত থাকবে

● শক্ত হাতে জঙ্গি ও মাদক দমন করেছেন শেখ হাসিনা

● শেখ হাসিনা ভোগ নয়, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছেন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, মাদককারবারি ও ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়েছে। এ শুদ্ধি অভিযান চলবে। এ লড়াইয়ে আমাদের জিততে হবে।

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ফার্মগেটের কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে আওয়ামী লীগ আয়োজিত দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, গুটিকয়েকের জন্য পার্টির দুর্নাম হতে পারে না। অপকর্ম করে কেউ পার পাবে না। কোনও অপকর্মকারীদের প্রশ্রয় দেয়া হবে না। তাদের জন্য শেখ হাসিনার অর্জন ম্লান হতে পারে না। দুর্নীতির বিরুদ্ধে এই শুদ্ধি অভিযান চলবে। শুধু রাজধানী ঢাকা নয়, বাইরেও এ অভিযান শুরু হচ্ছে বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

তিনি বলেন, গুটিকয়েক লোকের দায়ভার আওয়ামী লীগ নেবে না। যারা বিএনপি ও ফ্রীডম পার্টির লোকদের বৃহৎ এ দলে এনেছেন, অনুপ্রবেশে সহায়তা করেছেন তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন কাদের।

শেখ হাসিনার জন্মদিনে অভিনন্দন জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, একজন রাজনীতিবিদ পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে ভাবেন। আর শেখ হাসিনার পরবর্তী ভাবনা নতুন প্রজন্মকে নিয়ে। ৪৪ বছরের বিচক্ষণ রাজনীতিক, কূটনৈতিক, দক্ষ প্রশাসকের নাম শেখ হাসিনা। যার উন্নয়ন ও ক্ষমতার ছোয়া ছুয়ে গেছে জনপদ। মানুষের প্রতি অক্ষয় ভালোবাসা শেখ হাসিনার। বিশ্বের তিনজন সৎ রাজনীতিকের মধ্যে তিনি একজন। বিশ্বের ১০ জন সেরা রাষ্ট্রনায়কের মধ্যে তিনি একজন।

সভাপতির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, শেখ হাসিনা শক্ত হাতে জঙ্গি ও মাদক দমন করেছেন। এখন আবার দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছেন। এই শুদ্ধি অভিযানে ক্যাসিনোর মালিকরা ধরা পড়ছে। কিন্তু এ ক্যাসিনো ব্যবসা প্রথম চালু করেছিলেন জিয়াউর রহমান। তার আমলে পানের দোকানদারও মদ বিক্রি করতেন। দেশে জুয়া খেলাও চালু করেছিলেন জিয়া।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন, সেই পথ ধরেই শেখ হাসিনা বাবার স্বপ্ন পূরণে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে দেশ স্বাধীন হতো না। শেখ হাসিনার জন্ম না হলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হতো না। দেশে এখন আর দুর্ভিক্ষ নেই। উত্তর বঙ্গে এখন আর মঙ্গা নেই। সবই শেখ হাসিনার অর্জন। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসেন ভোগের জন্য নয়, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, শেখ হাসিনা ক্যাসিনোর বিরুদ্ধে যে অভিযান শুরু করেছেন। অভিযান শেষ করেই তিনি অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাবেন। তিনি শুধু বাংলাদেশের নেতাই নন। তিনি আন্তর্জাতিক নেতা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন।

সভায় প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য মতিয়া চৌধুরী, নূরুল ইসলাম নাহিদ, ড. আবদুর রাজ্জাক, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাস, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, মির্জা আজম, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদক খান, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।

টিএস/এসএমএম

আরও পড়ুন