• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ১৭, ২০১৯, ০৫:৩১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ১৭, ২০১৯, ০৫:৩২ পিএম

আমলাতন্ত্র ও ভূমিগত সমস্যা ঠেকিয়ে রাখা কঠিন : পরিকল্পনামন্ত্রী 

জাগরণ প্রতিবেদক
আমলাতন্ত্র ও ভূমিগত সমস্যা ঠেকিয়ে রাখা কঠিন : পরিকল্পনামন্ত্রী 
বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান -ছবি : জাগরণ

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বাংলাদেশে বৈষম্যের হার কমাতে বিভিন্ন আইনেরও সংস্কার হচ্ছে। কিন্তু দুটি বিষয়ে অনিয়ম অনেকটাই নিয়মে পরিণত হয়েছে। এক- আমলাতন্ত্র জটিলতা ও দুই- ভূমিগত সমস্যা। এগুলো দিন দিন এতটাই বেড়েছে, ঠেকিয়ে রাখা কঠিন।

বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে অক্সফাম আয়োজিত বাংলাদেশে অর্থনৈতিক বৈষম্য সম্পর্কিত এক জাতীয় সংলাপে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাশেদ আল মাহমুদ তিতুমীর।

বাংলাদেশে দারিদ্র্যর হার কমেছে কিন্তু বৈষম্য বেড়েছে বলে মন্তব্য করে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, বৈষম্য কেবল বাংলাদেশের সমস্যা নয়, এটি এখন বিশ্বজনীন সমস্যা। সরকার এ সমস্যা দূর করার চেষ্টা করছে। সরকার সোশ্যাল সেফটিনেট (সামাজিক নিরাপত্তাবলয়) বাড়ানোর জন্য কাজ করছে। যা বেড়েছে তা যথেষ্ট নয়। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে গুরুত্ব দিয়েই সব কাজ করা হচ্ছে।

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মীর্জ্জা আজিজুল ইসলাম বলেন, ঋণখেলাপীদের বিচারের আওতায় আনা সম্ভব হলে দেশে আয়ের এ বৈষম্য কমানো সম্ভব হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহ্উদ্দিন আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ এখন উন্নতির দিকে যাচ্ছে। খেয়াল রাখতে হবে, এ ধারা যেন নিচের দিকে না নামে।

অর্থনীতিবিদ এম এম আকাশ বলেন, কৃষকদের মধ্যস্বত্বভোগীদের হাত থেকে বাঁচানো সম্ভব হলে বাংলাদেশে জিডিপির হার ১০ শতাংশ হতে পারতো।

অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিমা, এনবিআররের সাবেক চেয়ারম্যান মুহম্মদ আবদুল মজিদ বক্তব্য রাখেন করেন।

আরএম/এসএমএম