• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১৫ মাঘ ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ৮, ২০২০, ০২:৩৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ৮, ২০২০, ০২:৪৭ পিএম

‘সিটি নির্বাচন নিয়ে এবারও সরকার নাটক করতে পারে’

‘সিটি নির্বাচন নিয়ে এবারও সরকার নাটক করতে পারে’
মতিঝিল চেম্বারে বিএনপির সমর্থিত দুই মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেনের সঙ্গে ড. কামাল হোসেন -ছবি : জাগরণ

সরকার দেশের পুরো নির্বাচন প্রক্রিয়াই নষ্ট করে দিয়েছে অভিযোগ করে এবারের ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়েও সরকার নাটক করতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন। এ সময় তিনি দেশের মানুষের অধিকার রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বানও জানান।

বুধবার (৮ জানুয়ারি) মতিঝিলে নিজ চেম্বারে ঢাকা সিটি করপোরেশন (উত্তর ও দক্ষিণ) নির্বাচনের বিএনপির সমর্থিত দুই মেয়র প্রার্থীর সাক্ষাতের সময় ড. কামাল হোসেন এসব কথা বলেন।

ড. কামাল দুই সিটি নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেন, আমাদের কথা হলো জনগণের কাছে যাওয়া, কথা বলা। দেশের মালিক তারা, তাদেরকে এগিয়ে আসতে হবে। খুব জোড়ালোভাবে সামনে আসতে হবে। দেশের মালিক যারা আছে, তাদের এই ব্যাপারে ভূমিকার রাখতে হবে।

তিনি বলেন, সরকার যেভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়াটাকে নষ্ট করেছে, এটা মানুষকে বুঝাতে হবে। এটা নিয়ে আমাদের আন্দোলন চলবে। গণতন্ত্রকে পুরোপুরি বাস্তবে জাগানোর জন্য ঐক্যবদ্ধ জনগণের আন্দোলনকে আরও জোরদার করা হবে। অবশ্যই জনগণ তাদের মালিকানা প্রতিষ্ঠা করবে। প্রকৃত অর্থে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হবে।

এ সময় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, সরকার কেড়ে নেয়া ছাড়া কোনভাবে সিটি নির্বাচনে জিততে পারবে না। এবার যদি তারা কেড়ে নিতে চায় তাহলে প্রতিরোধ করতে হবে। এ নির্বাচন শুধু আক্ষরিক অর্থে নয় সর্বাগ্রে আমরা ঐক্যফন্ট থেকে জোরালো সমর্থন দিচ্ছি। আমাদের ঐক্যফ্রন্টের সকল কেন্দ্রীয় নেতারা দুই প্রার্থীর প্রচারণায় অংশ নেবেন।

ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে মান্না বলেন, ঠিকমতো ভোট করেন। ২০১৯ সালে পার পেয়েছেন কিন্তু ২০ সালে পার পাবেন না। আমরা হুঁশিয়ার করে দিচ্ছি, প্রয়োজনে আমাদের সেকেন্ড পেজে আন্দোলন শুরু হবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, ঐক্যফ্রন্ট নেতা অধ্যাপক আবু সাইয়িদ চৌধুরী, সুব্রত চৌধুরী, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, শহীদ উদ্দীন, মাহমুদ স্বপন, শহীদ উল্লা কায়সার, মমিনুল হক ডা. জাহিদ হোসেন, শাহ আহমেদ বাদল, দফতরর প্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু। 

টিএস/একেএস

আরও পড়ুন