• ঢাকা
  • শনিবার, ০৬ জুন, ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ৮, ২০২০, ১২:১৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ৮, ২০২০, ১২:১৯ পিএম

এদের মানাবে কে?

জাগরণ প্রতিবেদক
এদের মানাবে কে?
মানা হচ্ছে না লকডাউন ● সংগৃহীত

কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হওয়ার পর রাজধানীর প্রায় ৫০টি এলাকা লকডাউন করা হয়েছে। এর মধ্যে মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) লকডাউন করা হয় ১০টি এলাকা।

পুলিশ জানায়, লকডাউন হওয়া এলাকা থেকে কেউ বের হতে ও ঢুকতে পারবেন না। তবে এসব এলাকায় নিত্যপণ্যের সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে। চায়ের দোকান খোলা থাকায় অবাধে চলছে আড্ডাবাজি। মাঝে মাঝে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা এসে সবাইকে সতর্ক করলে ভিড় কিছুটা কমে। তবে তারা চলে যাওয়ার পর আবারও কাছাকাছি চলে আসছেন সবাই।

জরুরি সেবা ও কাঁচাবাজার ছাড়া রাজধানীর বেশিরভাগ এলাকার দোকান-মার্কেট বন্ধ রয়েছে। তবে কাঁচাবাজারে বুধবার (৮ এপ্রিল) সকাল থেকেই রয়েছে ক্রেতা-বিক্রেতার ভিড়।

মিরপুর, কারওয়ানবাজারসহ রাজধানীর অলিগলির বিভিন্ন কাঁচাবাজারে নিত্যপণ্যের সরবারাহ স্বাভাবিক বলছেন বিক্রেতারা। পঁচনশীল পণ্যের দামও কিছুটা কম। তবে বাজারে মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা। বেশিরভাগ লোকজনই কাছাকাছি দাঁড়িয়ে কেনাবেচা করছেন।

রাজধানীর মোহাম্মদপুর, আদাবর, টোলারবাগসহ অনেক এলাকা লকডাউনে থাকলেও বাড়িতে থাকার নিয়ম একেবারেই মানা হচ্ছে না। অনেকে আবার নানা প্রয়োজনের অজুহাতে এলাকার বাইরে যাচ্ছেন। বাড়িতে বসে থাকতে ভালো লাগছে না— এই কথা বলেও অনেকে বাইরে যাচ্ছেন।

লকডাউন এলাকার আশেপাশের সড়কগুলোতেও বেড়েছে যানবাহনের আনাগোনা। ওইসব এলাকা ও বাড়িগুলোর সামনে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পর্যাপ্ত সদস্য দেখা যায়নি।

মুখে মাস্ক থাকলেও সামাজিক দূরত্বে থাকার সরকারি বিধিনিষেধ একেবারেই মানা হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের সচেতনতা ছাড়া করোনাভাইরাস মোকাবেলা সম্ভব না বলে জানাচ্ছেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

এসএমএম