• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই, ২০২০, ২৫ আষাঢ় ১৪২৭
প্রকাশিত: জুন ৫, ২০২০, ১০:৪১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ৫, ২০২০, ১০:৪১ পিএম

ছুটির দিনে ১৩২ কর্মকর্তার নজিরবিহীন পদোন্নতি

জাগরণ ডেস্ক
ছুটির দিনে ১৩২ কর্মকর্তার নজিরবিহীন পদোন্নতি

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারির মধ্যেই প্রশাসনের ১৩২ উপসচিবকে যুগ্ম-সচিব পদে পদোন্নতি দিয়েছে সরকার। তাদের মধ্যে ১২৩ জনের নামে শুক্রবার (৫ জুন) ছুটির দিনে নজিরবিহীনভাবে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এর মধ্যে জেলা প্রশাসক (ডিসি) রয়েছেন ৬ জন। আর ৯ জন লিয়েনে থাকায় তাদের নামে প্রজ্ঞাপন জারি হয়নি।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ১৮তম ব্যাচকে নিয়মিত ব্যাচ হিসেবে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। এ ব্যাচের ১০০ কর্মকর্তার মধ্যে প্রশাসনে কাজ করছেন ৯২ জন। এর মধ্যে ৮৯ জন কর্মকর্তা উপসচিব হয়েছেন। তিনজন কর্মকর্তা এখনও উপসচিব হতে পারেননি। তবে ৮৯ জন উপসচিবের মধ্যে যুগ্মসচিব হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন ৮৩ জন কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে ৭০ কর্মকর্তাকে শুক্রবার (৫ জুন) পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। বাকি ১৩ কর্মকর্তা যোগ্যতা থাকার পরও পদোন্নতি বঞ্চিত হয়েছেন।

যোগ্যতা থাকার পরও আগে পদোন্নতি বঞ্চিত (লেফটআউট) নবম ব্যাচের একজন, দশম ব্যাচের দু’জন, ১১তম ব্যাচের একজন, ১৩তম ব্যাচের চারজন, ১৫তম ব্যাচের একজন, ১৭তম ব্যাচের চারজন এবং অন্যান্য ক্যাডার থেকে ৪০ জনকে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। 

যুগ্মসচিবের স্থায়ী পদের সংখ্যা ৪১১টি। বর্তমানে ওই পদে ৬১৬ জন কর্মকর্তা কর্মরত থাকার পরেও নতুন করে ১৩২ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেয়া হলো। অথচ স্থায়ী পদ না থাকায় অনেক যুগ্মসচিবকে উপসচিবের ডেস্কেই কাজ করতে হচ্ছে। সে হিসেবে নতুন পদোন্নতিপ্রাপ্তদের বেশিরভাগকেই ইনসিটু (আগের পদেই দায়িত্ব পালন) থাকতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দেশের বড় কোনও দুর্যোগের মধ্যে ছুটির দিনে এবারই প্রথম পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। অথচ বর্তমানে প্রতিটি পদেই অনেক বেশি কর্মকর্তা রয়েছেন। তারপরও ছুটির দিনে  নজিরবিহীনভাবে পদোন্নতির প্রজ্ঞাপন জারি হলো। অন্য কোনও ক্যাডারে এভাবে ঢালাও পদোন্নতি দেয়া হয় না বলেও জানা গেছে। 

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন গণমাধ্যমকে বলেন, ছুটির দিনে পদোন্নতি দেয়া যাবে না এমন কোনও নির্দেশনা নেই। করোনা পরিস্থিতিতে অনেক কাজই আমরা ছুটির মধ্যে করছি।

এসএমএম