• ঢাকা
  • সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
প্রকাশিত: নভেম্বর ২০, ২০২০, ১১:৩২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ২০, ২০২০, ১১:৪৬ পিএম

উত্তরায় পাওয়া ৩১টি বোমার ১৩টি নিষ্ক্রিয়

আটক যুবদল নেতাদের দেয়া তথ্যে মিলল বোমার কারখানা

জাগরণ প্রতিবেদক
আটক যুবদল নেতাদের দেয়া তথ্যে মিলল বোমার কারখানা

রাজধানীর উত্তরায় মিলল হাতবোমা তৈরির কারখানা। সেখান থেকে জব্দ করা শক্তিশালী ৩১টি হাত বোমা নিষ্ক্রিয় করেছে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। আটক হওয়া যুবদল নেতা মামুন ও সোহেলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতেই বোমার কারখানার সন্ধান মেলে বলে জানায় মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে নাশকতার চেষ্টাকারীর সঙ্গে জড়িত বলেও ব্রিফিংয়ে জানানো হয়।

বোমা নিষ্ক্রিয় করার সময় একের পর এক বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে রাজধানী উত্তরার ১০ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর রোড। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ছয়তলা ভবনটির আশপাশের বাসিন্দারা।

পুলিশ বলছে, সদ্য অনুষ্ঠিত হওয়া ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের দিন একই এলাকায় হাতবোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় আটক করা হয় দুজনকে। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার (২০ নভেম্বর) সকাল থেকে অনুসন্ধানে নামে গোয়েন্দা পুলিশ। সে সময় একই এলাকার ১৪ নম্বর রোডের একটি বাসা থেকে জব্দ করে বিপুল সংখ্যক হাতবোমা।

স্থানীয়রা জানান, পরে খোঁজ মেলে বোমা তৈরির কারখানারও।

বিকেল ৫টার দিকে নির্মাণাধীন এই ভবনে আসে বোম্ব ডিস্পোজাল ইউনিট। একে একে বিকট শব্দে নিষ্ক্রিয় করতে থাকে উদ্ধার হওয়া বোমা।

গোয়েন্দা পুলিশ প্রধান জানান, রাজনৈতিক নাশকতার উদ্দেশে তৈরি হচ্ছিল হাতবোমাগুলো।

তিনি বলেন, এখানে বসেই তারা এই বোমাগুলি বানিয়েছিল। এগুলোর কিছু কিছু তারা ব্যবহারও করেছে। ব্যবহার করার সময় পুলিশ প্রশাসনের হাতে গ্রেফতার হয়। পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদে আমরা জানতে পেরেছি যে, তারা আরও বোমা বানিয়ে মজুদ করেছে।

আটক হওয়া দুই আসামি ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সোহেল এবং অন্যজনও যুবদল নেতা মামুন।

উত্তরার নির্মাণাধীন ভবন থেকে উদ্ধারকৃত ৩১টি হাতবোমার মধ্যে ১৩টি বোমা নিষ্ক্রিয় করতে পেয়েছে বোম ডিসপোজাল ইউনিট।

এসকে