• ঢাকা
  • সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২০, ০২:০৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ৪, ২০২০, ০২:০৭ পিএম

ভাসানচরের পথে রোহিঙ্গারা

জাগরণ প্রতিনিধি
ভাসানচরের পথে রোহিঙ্গারা

স্বেচ্ছায় স্থানান্তরে আগ্রহী রোহিঙ্গাদের নিয়ে নোয়াখালীর ভাসানচরের উদ্দেশে যাত্রা করেছে নৌবাহিনী। শুক্রবার সকাল ১০টায় ১ হাজার ৬৪২ জন রোহিঙ্গাকে নিয়ে কর্ণফুলী নদী থেকে যাত্রা করে ৭টি জাহাজ।  বাংলাদেশ নৌবাহিনীর তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রাম বোট ক্লাব এলাকায় এ কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে কড়া নিরাপত্তায় ৩৯টি বাসে করে রোহিঙ্গাদের চট্টগ্রাম নেয়া হয়। রাতে পতেঙ্গা বিএফ শাহীন কলেজ মাঠ ও সংলগ্ন এলাকায় অস্থায়ী ট্রানজিট ক্যাম্পে রাতযাপন করেন তারা।   

নৌবাহিনী কর্তৃপক্ষ জানায়, প্রথম দফায় যে রোহিঙ্গারা ভাসানচর যাচ্ছেন তাদের জন্য সেখানে প্রয়োজনীয় সমস্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সেখানে এরই মধ্যে ১ মাসের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসহ অন্যান্য সামগ্রী মজুদ আছে। 

সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের থাকার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামোসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে ভাসানচরে। ১২০টি ক্লাস্টার নিয়ে তৈরি ভাসানচরে এক লাখ রোহিঙ্গার আবাসনের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা, কর্মকর্তা, দূতাবাসের কর্মকর্তা, উচ্চপদস্থ ব্যক্তিদের জন্য উন্নত ও আধুনিক সুযোগ-সুবিধাসহ ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরে অবশ্য আপত্তি রয়েছে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার। তবে বাংলাদেশ সরকার থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে, কাউকেই জোর করে ভাসানচরে স্থানান্তর করা হচ্ছে না। স্বেচ্ছায় যারা সেখানে যেতে ইচ্ছুক কেবল তাদেরই স্থানান্তর করা হচ্ছে। 

২০১৭ সালে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর হামলা ও নিপীড়নের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয় ৭ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। বর্তমানে বাংলাদেশে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী অবস্থান করছে। তাদের বেশির ভাগই কক্সবাজার ও এর সংলগ্ন এলাকায় বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিয়েছে। 


 

আরও পড়ুন