• ঢাকা
  • বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৬, ২০২১, ০৭:২০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৬, ২০২১, ০৭:২৮ পিএম

সামরিক শক্তিতে বিশ্বে ৪৫তম বাংলাদেশ

সামরিক শক্তিতে বিশ্বে ৪৫তম বাংলাদেশ

২০২১ সালের বিশ্বের শক্তিধর রাষ্ট্রগুলোর তালিকার প্রকাশ করেছে সামরিক শক্তি পরিসংখ্যানকারী আন্তর্জাতিক সংস্থা গ্লোবাল ফায়ারপাওয়ার। ২০২০ সালে বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের সামরিক খাতের উন্নতি, প্রতিরক্ষা খাতে বিনিয়োগ, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ, সামরিক বাহিনীর দক্ষতা বৃদ্ধি, সমরাস্ত্রের মজুদসহ ৫০টির বেশি সূচক বিবেচনায় ১৩৮ দেশের তালিকা প্রকাশ করা হয়। গত বছরের চাইতে বাংলাদেশ এক ধাপ এগিয়ে তালিকায় ৪৫তম স্থান অর্জন করলেও প্রতিবেশী ভারত ও মিয়ানমারের চেয়ে সামরিক শক্তিতে অনেক দিক থেকেই পিছিয়ে আছে। এদিকে বরাবরের মতো তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর দেশ যুক্তরাষ্ট্র।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শক্তিশালী রাষ্ট্র ভারত রয়েছে তালিকার চতুর্থ স্থানে, অন্যদিকে পাকিস্তানের অবস্থান দশম। এই দুই দেশই সামরিক সক্ষমতায় গতবারের চাইতে কয়েক ধাপ উন্নতি করেছে। বাংলাদেশের আরেক প্রতিবেশী মিয়ানমারের অবস্থান এই তালিকায় ৩৮তম। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ, সামরিক বাহিনীর দক্ষতা আর যুদ্ধে অংশ নেয়ার মতো জনশক্তির দিকে বাংলাদেশ কিছুটা এগিয়ে থাকলেও বাকি সব সূচকেই পিছিয়ে আছে। তাই এবারের তালিকায় মাত্র এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ।

অন্যদিকে সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ যুক্তরাষ্ট্রের পরের অবস্থানেই আছে রাশিয়া। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চীন। এছাড়াও সামরিক শক্তিতে প্রথম দশ দেশের তালিকায় অবস্থান করছে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য ও ব্রাজিল। এবার র‍্যাংকিংয়ে সবচেয়ে উন্নতি করেছে ১০ম স্থানে থাকা পাকিস্তান ও ৩৬তম অবস্থানে থাকা সংযুক্ত আরব আমিরাত।

জিএফপি জানায়, শক্তিশালী রাষ্ট্রগুলো সমরাস্ত্রের আধুনিকায়নের সঙ্গে বৈচিত্র্য রাখার ব্যাপারেও বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। শক্তি যাচাইয়ের জন্য দেশগুলোর অর্থনৈতিক অবস্থা, প্রযুক্তিগত উন্নতি আর ভৌগলিক অবস্থানও বিবেচনা করা হয়। সেক্ষেত্রে শক্তিমত্তার সর্বোচ্চ মান ধরা হয় শূন্যকে। এই মাপকাঠিতে বাংলাদেশের শক্তিসূচক শূন্য দশমিক সাত চার নয় সাত।