• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২০, ২০২১, ০২:৫৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২০, ২০২১, ০৩:১৭ পিএম

পি কে হালদারের অর্থ পাচার মামলা

‘এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হয়েছে’

‘এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হয়েছে’

প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদারের সঙ্গে অর্থ পাচারে জড়িত ৮৩ জনের সংশ্লিষ্টতার পূর্ণাঙ্গ তালিকায় সাবেক সচিব এন আই খানের নাম ভুলভাবে যুক্ত হয়েছে দাবি করে হাইকোর্টে আবেদন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। 

বুধবার (২০ জানুয়ারি) হাইকোর্টে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে বিএফআইইউর দাখিল করা প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়েছে। 

শুনানির দিন বৃহস্পতিবার নির্ধারণ করেছেন আদালত। 

হাইকোর্টে দাখিল করা প্রতিবেদনে পি কে হালদার ও তার ৮৩ সহযোগী এবং ৪৩টি নামসর্বস্ব প্রতিষ্ঠানের নামে ঋণ দিয়ে একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের বিস্তারিত তথ্যও উঠে এসেছে। এসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব এরই মধ্যে ফ্রিজ অবস্থায় রয়েছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। 

চারটি নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে পি কে হালদার ও তার সহযোগীদের আত্মসাৎ করা অর্থের পরিমাণ কয়েক হাজার কোটি টাকা। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড, ফাস ফাইন্যান্স, পিপলস লিজিং ও রিলায়েন্স ফাইন্যান্স।

নামসর্বস্ব প্রতিষ্ঠান তৈরি করে নিজ আত্মীয়স্বজন ও সহযোগীদের মাধ্যমে এই অর্থ আত্মসাৎ করে পলাতক রয়েছেন পি কে হালদার। এরইমধ্যে পি কে হালদারের বিরুদ্ধে ৮ জানুয়ারি রেড নোটিশ জারি করে ইন্টারপোল। বাংলাদেশ পুলিশের ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরো (এনসিবি) অর্থাৎ ইন্টারপোলের ঢাকা শাখার অনুরোধে ইন্টারপোল এ রেড নোটিশ জারি করা হয়।