• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২১, ১০:০৮ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২২, ২০২১, ১০:৪২ এএম

বাংলাদেশে টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চায় ‍‍‘ভারত বায়োটেক‍‍’

বাংলাদেশে টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চায় ‍‍‘ভারত বায়োটেক‍‍’

‘ভারত বায়োটেক’ তাদের কোভ্যাক্সিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করতে চেয়ে আবেদন করেছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে এ কথা জানান বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

গত নভেম্বরে ‘ভারত বায়োটেক’ ভারতেই কোভ্যাক্সিনের প্রয়োগ শুরু করে। এর বিস্তারিত ফলাফল মার্চ নাগাদ পাওয়া যাবে। তবে বাংলাদেশে এরই মধ্যে ভারত থেকে উপহার হিসেবে পৌঁছেছে ২০ লাখ টিকা, যা অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যাস্ট্রাজেনেকা স্বীকৃত, তবে তা ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটে তৈরি। এ ছাড়া একই টিকা আরো তিন কোটি ডোজ কেনার পরিকল্পনা আছে বাংলাদেশের, যার ৫০ লাখ ডোজ এই জানুয়ারিতেই পাবে তারা।

ভারত সরকারের টিকার দায়িত্বে থাকা একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বিনোদ কুমার পাল রয়টার্সকে জানিয়েছেন, বাংলাদেশে এক থেকে দুই হাজার জনের ওপর টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করার জন্য তারা আবেদন করেছে। বাংলাদেশ মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিলের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা মাহমুদ-উজ-জাহান তাদের আবেদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রিভিউ কমিটি এই আবেদনের নৈতিক দিকগুলো বিবেচনা করে দেখবেন বলে মন্তব্য করেন তিনি। এর বেশি কিছু বলতে রাজি হননি ওই কর্মকর্তা।

রয়টার্স আরো জানায়, ঢাকাস্থ ডায়রিয়াসংক্রান্ত রোগ নিয়ে গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইসিডিডিআরবি ভারত বায়োটেকের হয়ে এই টিকা প্রয়োগ করতে চায়। ভারত বায়োটেক কিংবা আইসিডিডিআরবি’র কোনো মুখপাত্র এই ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলতে চাননি।

সাইনোভ্যাক বায়োটেকের শেষ পর্যায়ের ট্রায়ালে বাংলাদেশ তাদের সহ-অর্থায়ন দিতে রাজি না হওয়ায় সেটি অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। রয়টার্স থেকে জানা যায় এখনই কোভ্যাক্স কেনার পরিকল্পনা নেই বাংলাদেশের।