• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১, ৭ বৈশাখ ১৪২৮
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ০৪:৩৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, ০৪:৩৭ পিএম

শাহবাগে গ্রেপ্তার সাতজনের  বিরুদ্ধে ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা

শাহবাগে গ্রেপ্তার সাতজনের  বিরুদ্ধে ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা

রাজধানীর শাহবাগে মশাল মিছিলের সময় গ্রেপ্তার সাতজনকে রিমান্ডে নিতে আবেদন করেছে পুলিশ। অভিযোগ রয়েছে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় পুলিশের ওপর হামলা করে ‘হত্যাচেষ্টা’ চালায় তারা।

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) আসামিদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদের সাতদিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করে শাহবাগ থানা পুলিশ। তারা হলেন- তামজীদ হায়দার, নজিব আমিন চৌধুরী জয়, এএসএম তানজিমুর রহমান, আকিব আহম্মেদ, আরাফাত সাদ, নাজিফা জান্নাত ও জয়তী চক্রবর্তী।

এজহারে বলা হয়েছে, ‘আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে পূর্বপরিকল্পিতভাবে লাঠিসোঁটা, ইটপাটকেলসহ পুলিশের কর্তব্যকাজে বাধা প্রদান করে হত্যার উদ্দেশে আক্রমণ করে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। মিছিলকারীরা মশাল দিয়ে পুলিশের ওপর হামলা করে।’

এসআই মো. মিন্টু মিয়ার করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, এক পুলিশ সদস্যের বুলেটপ্রুফ পোশাকে আগুন ধরে যায়। শাহবাগ থানার পুলিশ পরিদর্শকসহ ১৫ জন পুলিশ সদস্য আহত হন।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুনুর রশীদ বলেন, “শাহবাগে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় সাতজনকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও ১০০-১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলাটি করেছেন শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিন্টু মিয়া।

লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর তদন্ত ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে গতকাল শাহবাগে প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনসমূহের মশাল মিছিলে বাধা দেয় পুলিশ। এ সময় প্রতিবাদকারীদের সঙ্গে পুলিশের ধাক্কাধাক্কি হয়। পুলিশের লাঠিপেটায় এক পর্যায়ে আন্দোলকারীদের কয়েকজন মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এ সময় আহত হয় কমপক্ষে ২০জন। এরপর মিছিলটি ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। পরে আবার মিছিল শুরু হলে পুলিশ আবারও তাদের পিছু হটানোর চেষ্টা করে।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট, ঢাকা নগর শাখার সভাপতি রাফিকুজ্জামান ফরিদ বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় শান্তিপূর্ণ মশাল মিছিল করার সময় পুলিশ লাঠিচার্জ করে।  আমাদের চল্লিশ জনের মতো আহত হয়েছে।" এসময় তিনি কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান। ফরিদ আরো জানান, আগামী সোমবার (১ মার্চ) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও করার কর্মসূচি রয়েছে তাদের।