• ঢাকা
  • রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১, ২৭ চৈত্র ১৪২৭
প্রকাশিত: মার্চ ৭, ২০২১, ০৫:১০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ৭, ২০২১, ০৮:৩২ পিএম

৭ মার্চের ভাষণই স্বাধীনতার নির্দেশনা: প্রধানমন্ত্রী 

৭ মার্চের ভাষণই স্বাধীনতার নির্দেশনা: প্রধানমন্ত্রী 

৭ মার্চের ভাষণই স্বাধীনতার ঘোষণা, এতে সব নির্দেশনা দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (৭ মার্চ) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ৭ মার্চ স্মরণে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে এ অনুষ্ঠানে যুক্ত হন তিনি।

এক সময়ের নিষিদ্ধ হওয়া ভাষণটি জাতিসংঘের স্বীকৃতি পেয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “যুদ্ধের রণকৌশলে জাতির পিতার প্রতিটি পদক্ষেপই বাস্তবমুখী ছিল।”

শেখ হাসিনা বলেন, “এ ভাষণের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি দিক আছে; বাঙালির বঞ্চনার ইতিহাস, যুদ্ধের প্রস্তুতি ও রণকৌশল। এটি যে স্বাধীনতার যুদ্ধ সেটিও স্পষ্টত বঙ্গবন্ধু বলে গেছেন। সেসময় পূর্ববাংলার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ ৩২ নম্বর থেকে হত। ৩২ নম্বর থেকে যা যা নির্দেশনা দিয়েছেন, বাঙালি জাতি অক্ষরে অক্ষরে সেসব পালন করেছে। 

বিশ্বজুড়ে এখন বঙ্গবন্ধুর ভাষণ নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে এবং তার অন্তর্নিহিত অর্থ খুঁজে বের করার চেষ্টাও চলছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “বঙ্গবন্ধু এটাও জানতেন যে মুহূর্তে তিনি স্বাধীনতার ঘোষণাটা বাস্তবে অফিশিয়ালভাবে দেবেন, সেই মুহূর্তে হয়ত তিনি বেঁচে নাও থাকতে পারেন। সেইজন্য তার এই ঐতিহাসিক ভাষণের ভেতরেই কিন্তু তিনি স্বাধীনতার ঘোষণাটা দিয়ে গেলেন।”

মাকে স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “প্রতিটি ক্ষেত্রে সংগ্রামের ক্ষেত্রে আন্দোলনের ক্ষেত্রে একটা পরিমিতিবোধ কিন্তু থাকতে হয়। সাতই মার্চের ভাষণ যখন দিতে যাবেন, তখন আমার মায়ের একটাই পরামর্শ ছিল- সারাটা জীবন সংগ্রাম করেছ তুমি। তোমার মনে যেই কথা আছে, তুমি ঠিক সেই কথাটাই বলবে। কারও কথা শুনবার তোমার প্রয়োজন নাই।”