• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মে, ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৮, ২০২১, ০২:৫৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৮, ২০২১, ০৪:২০ পিএম

স্ত্রীর ডাকে সাড়া না দিয়ে মাদ্রাসাতেই ছিলেন মামুনুল  

স্ত্রীর ডাকে সাড়া না দিয়ে মাদ্রাসাতেই ছিলেন মামুনুল  

গত ৩ এপ্রিল বিকেল সোয়া ৩টার দিকে নারায়ণগঞ্জের একটি রিসোর্ট থেকে মামুনুল হককে নারীসহ আটক করেন স্থানীয়রা। ওইদিন বিকেলে এ ধরনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর তার প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে কথোপকথনেরও একটি অডিও ভাইরাল হয়। সেখানে মামুনুল তার প্রথম স্ত্রীকে পরিস্থিতি বোঝাতে চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে স্ত্রী মামুনুলকে বলেন, “বাসায় আসেন।”

কিন্তু স্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে বাসায় ফেরেননি এই হেফাজত নেতা। ঢাকা ফিরে মোহাম্মদপুরের কাদিরাবাদ হাউজিংয়ের নিজ বাসার পাশে ‘জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসায়’ যান। ৩ এপ্রিল রাত থেকে তিনি সেখানেই অবস্থান করছিলেন। 

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ওই মাদ্রাসায় নজর রাখছিল। মাদ্রাসা থেকে ফেসবুকে লাইভ করেন মামুনুল। লাইভে এসে দ্বিতীয় বিয়ের দাবির স্বপক্ষে প্রথম স্ত্রীর কাছে ‘সত্য গোপন করার অবকাশ রয়েছে’ এমন বক্তব্য দিয়ে নিজ দলের নেতাকর্মীদের কাছে সমালোচনার শিকার হন তিনি। পরে চাপের মুখে সেই ভিডিও ফেসবুক থেকে ডিলিটও করে দেন। 

মাদ্রাসা থেকে বের হলেই তিনি গ্রেপ্তার হবেন-এ কারণে তিনি সেখানেই অবস্থান করছিলেন। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মামুনুলের অবস্থান নিশ্চিতের পর রোববার (১৮ এপ্রিল) তাকে ওই মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া থেকেই গ্রেপ্তার করতে সমর্থ হয়। 

আরও পড়ুন