• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ মে, ২০২১, ১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২১, ০৭:৫১ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২৯, ২০২১, ০৮:০৭ পিএম

সাবেক আইনমন্ত্রী লড়ছেন না বসুন্ধরার এমডির পক্ষে

সাবেক আইনমন্ত্রী লড়ছেন না বসুন্ধরার এমডির পক্ষে

মোসারাত জাহান মুনিয়ার আত্মহত্যায় প্ররোচনায় দায়ের হওয়া মামলার আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরের আইনজীবী হচ্ছেন না সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ।

বৃহস্পতিবার সকালে একটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা গিয়েছিল তিনি লড়বেন। এমনকি দুপুরে জাগরণ অনলাইনকে ইতিবাচক ইঙ্গিত দিলেও,  সন্ধ্যায় নিশ্চিত করে বলেন এই মামলায় তাঁকে নিয়োগ দেয়া হয়নি।

তাহলে কি বসুন্ধরার এমডির পক্ষে আপনি আইনি লড়াই লড়ছেন না?—জাগরণের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি সরাসরি ‘না’ বলেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চে বসুন্ধরার এমডির আগাম জামিন আবেদনটি শুনানি হওয়ার কথা ছিল। তবে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় সকালে আগাম জামিন শুনানি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেন হাইকোর্ট। ফলে সায়েম সোবহান আনভীরের করা আবেদনের শুনানি হয়নি।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) কলেজছাত্রী মোসারাত জাহান মুনিয়াকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা করা মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিনের জন্য আবেদন করেছেন সায়েম সোবহান আনভীর।

গত ২৬ এপ্রিল, সোমবার সন্ধ্যার পর রাজধানীর গুলশানের নিজের ফ্ল্যাট থেকে মোসারাত জাহান মুনিয়ার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরকে আসামি করে মামলা করেন মুনিয়ার বোন নুসরাত জাহান।

মামলার এজাহারে বাদী বলেন, মিরপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী মোসারাত জাহান মুনিরা। দুই বছর আগে মুনিরা এবং সায়েম সোবহান তানভীরের মধ্যে পরিচয় হয়। এরপর থেকে তারা বিভিন্ন রেস্তোরাঁয় দেখা করতেন। তাদের প্রায় সময় মোবাইলে ফোনে কথা বলতে দেখা যেত। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।