• ঢাকা
  • শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১, ৮ কার্তিক ১৪২৮
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১, ০১:৩৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১, ০৭:৩৭ এএম

‘দুই-তিন দিনের মধ্যেই বিমানবন্দরে আরটি পিসিআর পরীক্ষা’

‘দুই-তিন দিনের মধ্যেই বিমানবন্দরে আরটি পিসিআর পরীক্ষা’
সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুল ইসলাম। ছবি: সংগৃহীত

প্রবাসীকর্মী ও যাত্রীদের দ্রুততম সময়ে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার জন্য হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আরটি-পিসিআর ল্যাবরেটরির পরীক্ষামূলক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। তবে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ল্যাবটি পুরোদমে শুরুর আশা করছে সরকার।

রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আমাদের বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র আরব আমিরাত একটি কন্ডিশন দিয়েছে। বাংলাদেশিদের যেতে হলে যাত্রার ৪৮ ঘণ্টা ও ৬ ঘণ্টা আগে বিমানবন্দরে পিসিআর টেস্ট করতে হবে। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্মিলিতভাবে বিমানবন্দরের ভেতরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক আরটি-পিসিআর ল্যাবরেটরির পরীক্ষামূলক কার্যক্রম শুরু করেছে।’

‘যদি এটি সাকসেসফুল হয় এবং সেফ ডিক্লেয়ার করে, তখন আমরা এয়ারলাইন্সগুলোকে অবহিত করব। আশা করছি ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে...কারণ আমাদের ৪৮ ঘণ্টা সময় দিতে হবে। প্রত্যেক যাত্রীকে ৪৮ ঘণ্টা আগে পিসিআর টেস্ট করতে হবে। পিসিআর টেস্ট করার জন্য আমাদের কমপক্ষে দুইদিন সময় দিতে হবে এয়ারলাইন্সগুলোকে যাত্রীদের জন্য।’

মফিদুর রহমান বলেন, ‘আশা করছি আগামী ২/৩ দিনের মধ্যে পুরোপুরিভাবে যাত্রা (আরটি-পিসিআর পরীক্ষা) শুরু হয়ে যাবে। এরইমধ্যে যাত্রা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ছিল, আমরা যাতে দ্রুত বাস্তবায়ন করি। সেজন্য আমরা টেস্ট কেস হিসেবে ৪৬ জনকে এরইমধ্যে পাঠিয়েছি। তারা এটা অ্যাকসেপ্ট করেছেন।’

চেয়ারম্যান আরও বলেন, ‘যে এসওপিটা পাঠিয়েছিলাম ছয়টি সংস্থার, ওটার অ্যাপ্রুভালটাও আজকে পেয়ে যাব। সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বিমানবন্দর প্রস্তুত বলে ঘোষণা দেবে, মোট কতজন যাত্রী তারা হ্যান্ডেল করতে পারবেন এটা যখন জানাবেন, আমরা এয়ারলাইন্সগুলোকে জানিয়ে দেব। আশা করি দু-একদিনের মধ্যে যাত্রা শুরু হয়ে যাবে।’

এ সময় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী উপস্থিত ছিলেন।

জাগরণ/এমএইচ