• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ মে, ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১০, ২০২২, ১২:১৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১০, ২০২২, ০৬:১৩ এএম

রেলওয়ের আইবাস সিস্টেম জটিলতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ

রেলওয়ের আইবাস সিস্টেম জটিলতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ
ছবি- জাগরণ।

রেলওয়ের আইবাস সিস্টেম জটিলতার বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছে ট্রেনচালক, সহকারি চালক ট্রেন পরিচালক ও টিটিই। সংকট নিরসনের দাবীতে তারা লালমনিরহাট রেলওয়ের রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারী সমিতির ব্যানারে রোববার (৩১অক্টোবর) সকালে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। বিক্ষোভ মিছিল শেষে লালমনিরহাট রেলওয়ে বিভাগীয় কার্যালয়ে সামনে সমাবেশ করে তারা। 

সমাবেশে নতুন মাইলেজ কোড বাতিল করে পার্ট অফ পে হিসেবে পূর্বের ন্যায় বেতন কোড হতে মাইলেজ প্রদানের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানানো হয়। অন্যথায় রেল চলাচল বন্ধ সহ বৃহত্তর আন্দোলনের হুমকিও দেন তারা।

সমাবেশ শেষে বিভাগীয় যান্ত্রিক প্রকৌশলী রাসেল আলমের মাধ্যমে রেলওয়ের লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নুর মোহাম্মদের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।   

এ ব্যাপারে রেলওয়ে রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারী সমিতির লালমনিরহাট বিভাগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ বলেন, "রেল সৃষ্টির পর থেকে ট্রেন চালকরা মাসে যত ঘণ্টা ট্রেন চালান মাস শেষে বেতন এর পাশাপাশি ততো ঘন্টার মাইলেজ ভাতা পেয়ে আসছেন।  কিন্তু রেলওয়েতে ডিজিটাল সিস্টেম আইবাস প্লাস প্লাস পদ্ধতিতে বেতন ভাতা পরিশোধের নতুন নিয়ম চালু করার পায়তারা চলছে। এই ব্যবস্থা চালু হলে ট্রেনের লোকো মাস্টার (ট্রেনচালক) সহকারি লোকোমাস্টার (সহকারি ট্রেনচালক) গার্ড (ট্রেন পরিচালক) টিটইরা মাসে ছয় থেকে আট হাজার মাইল ট্রেন চালালেও তিন হাজারের বেশি মাইলেজ পাবেন না। সারাদেশে আমাদের এগার শত লোকোমাস্টার ও সহকারী লোকো মাস্টার, ছয় শত ট্রেন পরিচালক ও প্রায় আট শত টিটিই আছেন যারা ট্রেন চালানোর ক্ষেত্রে ভূমিকা পালন করে আসছেন। এই তিন স্তরের কর্মচারীরা আমরা যারা রেলওয়ে রানিং স্টাফ তারা রেল সৃষ্টির শুরু থেকে রেলওয়ে কোডের বিধান মতে আট ঘণ্টা কাজের জন্য বা প্রতি একশত মাইল ট্রেন চালালে একদিনের মূল বেতনের সমপরিমাণ অতিরিক্ত মাইলেজ ভাতা পেয়ে থাকি। ট্রেন চালানোর সময় খাওয়া-দাওয়া বাবদ ব্যয় করতে হয় এই হিসাবে ছয় থেকে আট হাজার মাইল ট্রেন চালালে সাইট থেকে আশি দিন এর মাইলেজ ভাতা হিসেবে মাসিক বেতনের সাথে নিয়মিত পেয়ে আসছেন। সেই পুরোনো নিয়মকে বদলানোর পায়তারা করা হচ্ছে। এটাকে আমরা সফল হতে দেবো না, প্রয়োজনে সবাই মিলে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেবো।"    

উল্লেখ্য, আইবাস প্লাস প্লাস সিস্টেম জটিলতা নিরসনে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে রেলওয়ের রানিং স্টাফ ও শ্রমিক কর্মচারীরা।   

 

এসকেএইচ//