• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৮, ২০২২, ১১:৫২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ডিসেম্বর ২৯, ২০২২, ০৫:৫৩ এএম

মেট্রোরেল যুগে বাংলাদেশ

মেট্রোরেল যুগে বাংলাদেশ
ছবি ● সংগৃহীত

বাঙালির আরও এক স্বপ্ন পূরণ হলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে মেট্রো যুগে পা রাখলো সবুজ-শ্যামল বাংলাদেশ।

বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবুজ পতাকা উড়িয়ে ও ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন বহু কাঙ্ক্ষিত মেট্রোরেলের।

মেট্রোরেলের ফিতা কেটে উদ্বোধনের সময় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন একজন শারীরিক প্রতিবন্ধী, শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানা, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ অন্যরা।

উদ্বোধনের পর প্রধানমন্ত্রী তার সঙ্গে থাকা অতিথিসহ কৃষক, শ্রমিক, রিকশাচালক, গার্মেন্টস কর্মী, মেট্রোরেলের নির্মাণ শ্রমিক, মুক্তিযোদ্ধা, সব ধর্মের প্রতিনিধি, কূটনীতিক, মন্ত্রী পরিষদের সদস্য এবং সংবাদকর্মীদের নিয়ে দিয়াবাড়ি থেকে মেট্রোরেলে সফর করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে স্টেশন চত্বরে গাছের চারা রোপণ করেন। এরপর স্টেশনে ঢুকে নিজ হাতে টিকেট কাটেন।

শুরুতে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চলবে মেট্রোরেল। পৌনে ১২ কিলোমিটারের এই পথ মেট্রোরেলে পাড়ি দিতে সময় লাগবে ১০ মিনিট ১০ সেকেন্ড।

উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চলার সময় ট্রেনগুলো মাঝপথে কোথাও থামবে না। ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটারের এই পথে ৯টি স্টেশন থাকলেও উত্তরা ও আগারগাঁওয়ের যাত্রী ছাড়া অন্যরা এ সুবিধা পাবেন না।

এদিকে, মেট্রোরেলে যাতায়াতে কোনো কাগজের টিকিট থাকেছ না। মেট্রোরেল স্টেশন থেকেই কার্ড কিনে যাতায়াত করতে হবে। প্রথম দিকে স্টেশনে দুই ধরনের কার্ড পাওয়া যাবে। স্থায়ী ও এক যাত্রার (সিঙ্গেল জার্নি) কার্ড। শুরুতে উত্তরা ও আগারগাঁও স্টেশন থেকে কার্ড সংগ্রহ করা যাবে। এই পথের ভাড়া ৬০ টাকা।

তবে, ১০ বছর মেয়াদি স্থায়ী কার্ড কিনতে হবে ২০০ টাকা দিয়ে। এই কার্ড দিয়ে যাতায়াতের জন্য প্রয়োজনমতো টাকা রিচার্জ করা যাবে। স্থায়ী কার্ড পেতে নিবন্ধন করতে হবে। 

বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) ডিএমটিসিএলের ওয়েবসাইটে নিবন্ধনের লিংক দেয়া হবে। এদিন থেকে নিবন্ধন করা যাবে। নিবন্ধন করতে নিজের নাম, মা-বাবার নাম, জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা পাসপোর্ট নম্বর, মুঠোফোন নম্বর, ই-মেইল আইডি লাগবে।

স্টেশনের টিকিট অফিস মেশিন (টিওএম) থেকে বিক্রয়কর্মীর সহায়তায় কার্ড কেনা যাবে। ভেন্ডিং মেশিন থেকে যাত্রীরা নিজেরাই স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন।

জাগরণ/যোগাযোগ/এসএসকে