• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০
প্রকাশিত: মার্চ ১৯, ২০২৩, ০১:১৬ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১৯, ২০২৩, ০১:১৬ এএম

পাইপলাইনে ভারত থেকে ডিজেল আসা শুরু

পাইপলাইনে ভারত থেকে ডিজেল আসা শুরু
ছবি ● সংগৃহীত

ভারতের নুমালিগড় থেকে শিলিগুড়ি হয়ে ১৩১ কিলোমিটার দীর্ঘ পাইপলাইনে বাংলাদেশের পার্বতীপুরে ডিজেল আনার কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে।

শনিবার (১৮ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৫টায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

এত দিন ভারত থেকে ডিজেল আনা হতো ট্রেনে করে। এতে ব্যয় ও সময় লাগতো বেশি। এরপর ব্যয় কমানো ও দ্রুত ডিজেল সরবরাহ করতে ২০১৭ সালে পাইপলাইনের মাধ্যমে ডিজেল আমদানির চুক্তি করে বাংলাদেশ- ভারত।

ছয় বছর পর এ পাইপলাইনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এসময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে জ্বালানি তেলের যে অস্থিরতা ছিল, তার কিছুটা হলেও কমবে।

তিনি বলেন, ফ্রেন্ডশিপ পাইপলাইন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সহযোগিতার উন্নয়নের মাইলফলক।

আর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, বাংলাদেশের বিদ্যুৎ পরিস্থিতি অনেক ভালো। এ পাইপলাইনের কারণে দুই দেশের জনগণই এ উপকৃত হবে। পাশাপাশি প্রকল্পের মাধ্যমে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের নতুন যুগের সূচনা হয়েছে দুই দেশের মধ্যে।

এ প্রকল্পে ভারত সরকার ৩০৩ কোটি টাকা ও বিপিসি ২১৭ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। চুক্তি অনুযায়ী, প্রথম তিন বছর দুই লাখ টন, পরের তিন বছর তিন লাখ টন আর পরের চার বছর পাঁচ লাখ টন করে এবং পরবর্তী বছরগুলোতে বার্ষিক ১০ লাখ টন করে জ্বালানি ভারত থেকে বাংলাদেশে আসবে।

দীর্ঘ এ পাইপলাইনে ৪৭ লাখ লিটার বা চার হাজার ৭০০ টন তেল সব সময় সংরক্ষিত থাকবে। শিলিগুড়ি প্রান্ত থেকে নতুন তেল দিয়ে চাপ দিলেই পার্বতীপুর প্রান্তে পাইপের তেল বেরিয়ে ছাকনি প্রক্রিয়া শেষে ডিপোতে জমা হবে।

জাগরণ/জ্বালানি/কেএপি