• ঢাকা
  • রবিবার, ২৩ জুন, ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১
প্রকাশিত: মার্চ ১০, ২০২৪, ১২:১২ এএম
সর্বশেষ আপডেট : মার্চ ১০, ২০২৪, ১২:১২ এএম

ময়মনসিংহে ফের মেয়র টিটু

ময়মনসিংহে ফের মেয়র টিটু
ছবি ● সংগৃহীত

ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে বড় ব্যবধানে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন ইকরামুল হক টিটু। মোট ১২৮টি কেন্দ্রে ইকরামুল হক টিটু টেবিল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে ১ লাখ ৩৯ হাজার ৬০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাদেকুল হক খান মিল্কি হাতি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৫ হাজার ৭৬৩ ভোট।

শনিবার রাত ১০টা ৪০ মিনিটে রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন চৌধুরী এ ফল ঘোষণা করেন।

জয়ী হওয়ার পর গণমাধ্যম প্রতিক্রিয়া জানান ইকরামুল হক টিটু। টিটু বলেন, ‘ময়মনসিংহকে নগরীকে সাজাতে যা যা করা দরকার তাই করা হবে। তবে প্রথমে গুরুত্ব দেয়া হবে যানজটকে।’

এ নির্বাচনে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামুল আলম পেয়েছেন ১০ হাজার ৭৭ ভোট ও অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী হরিণ প্রতীক নিয়ে রেজাউল হক পেয়েছেন ১ হাজার ৪৮৭ ভোট। কৃষিবিদ রেজাউল হক ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী শহিদুল ইসলাম পেয়েছেন ১ হাজার ৩২১ ভোট।

ময়মনসিংহ সিটিতে মেয়র পদে নির্বাচন করেন ৫ জন। ৩৩ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদের নির্বাচনে অংশ নেন ১৪৯ জন। আর সংরক্ষিত কাউন্সিলর প্রার্থী ছিলেন ৬৯ জন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটার ৩ লাখ ৬৪ হাজার ৯৬ জন। ভোটকেন্দ্র ১২৮টি। এই সিটি করপোরেশন এবার ভোটগ্রহণ হয়েছে ইভিএমের মাধ্যমে। ভোট পড়েছে ৫৬ দশমিক ৩০ শতাংশ। মোট বৈধ ভোটের সংখ্যা ১ লাখ ৮৮   হাজার ৯৪৮। এ নির্বাচনে ৪৯১ ভোট বাতিল করা হয়। 

এরআগে ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনে সকাল থেকেই কেন্দ্রমুখী হন ভোটাররা। তবে, লাইনে দাঁড়ানোর পর নারী ভোটারদের অনেককে পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। আঙুলের ছাপ না মেলায় দেরি হয় ভোট দিতে। মেয়র প্রার্থী ইকরামুল হক টিটুও অভিযোগ করেন ইভিএম নিয়ে। কঠোর নিরাপত্তায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই শেষ হয় ময়মনসিংহ সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ।

ময়মনসিংহে ইভিএমে ভোট দিতে বিড়ম্বনার অভিযোগ করেছেন প্রার্থী ও ভোটাররা। এতে কমে যায় ভোটগ্রহণের গতি। ভোটার উপস্থিত কম হওয়ার আশঙ্কাও প্রকাশ করেন অনেকে। যদিও নির্বাচন কর্মকর্তারা জানান, প্রথম দিকে ভোটগ্রহণের গতি কম থাকলেও পরে তা ঠিক হয়ে গেছে। কেন্দ্রে দেড়গুণ ইভিএম রাখার কথা জানিয়েছিল রিটার্নিং অফিসার। 

২০১৮ সালে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠার পর, বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রথম মেয়র হন ইকরামুল হক টিটু। তবে এবার তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন তিন সহযোগী ও বিরোধী দল জাতীয় পার্টির প্রার্থীর সঙ্গে।

জাগরণ/মসিকনির্বাচন/এসএসকে