• ঢাকা
  • শনিবার, ০৬ জুন, ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৫, ২০২০, ০৯:০৫ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২৫, ২০২০, ০৯:০৬ পিএম

‘বন্ধ হোক এসব মিথ্যার বেসাতি’

এস এম সাব্বির খান
‘বন্ধ হোক এসব মিথ্যার বেসাতি’
এস এম সাব্বির খান

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতোই করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করছে বাংলাদেশ সরকারও। কিন্তু সরকারের সব প্রচেষ্টার মাঝে দেশব্যাপী জনগণের কাছে সরকারকে বিতর্কিত করার লক্ষে চলছে নানামুখী গুজবের প্রচারণা আর মিথ্যাচারিতার ষড়যন্ত্র।

সাভারের ব্যাংক কলোনী এলাকায় ভাড়ায় থাকেন এক পরিবার। স্বামী মাটি কাটার কাজ করেন। তাদের এক বছরের এক মেয়ে ও দুই বছরের ছেলে সন্তান রয়েছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর তার স্বামী কর্মহীন হয়ে পড়েন। ঘরে জমানো টাকায় বেশ কয়েকদিন চলেছে তাদের। তবে গত তিনদিন ধরে ঘরে কোনও টাকা বা খাবার ছিল না। এ অবস্থায় এদিক ওদিক ঘুরে কোনও ত্রাণ পাননি। এদিকে খেতে না পেয়ে দুই সন্তানের কান্না থামছিল না। অবশেষে সোমবার মাথার চুল কেটে বিক্রির সিদ্ধান্ত নেন ওই নারী। তিনি এলাকার এক নারীর কাছে ১৮০ টাকায় সেই চুল বিক্রি করেন। সেই টাকা দিয়ে সন্তানদের জন্য খাবার কেনেন।

খবরটি কয়েক ঘণ্টায় ভাইরাল হয়ে যায়। খবর পেয়ে সাংবাদিকরা হামলে পড়েন সাভারের সেই মহিলার খোঁজে। করোনাভাইরাসে লকডাউনে থাকাবস্থায় অভাবের তাড়নায় নিজের মাথার চুল বিক্রি করে বাচ্চার দুধ কেনার মিথ্যা খবরে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিভিন্ন গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (ফেসবুক) এ খবর পেয়ে জনপ্রতিনিধি, ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক নেতা, সমাজকর্মীসহ অনেকেই বুধবার ত্রাণ নিয়ে তার বাড়িতে ছুটে যান। স্থানীয় প্রশাসন এ নিয়ে খোঁজ শুরু করলে বেরিয়ে আসে আসল তথ্য। দিনমজুরের স্ত্রী, দুই সন্তানের জননী সাথী বেগম ২ মাস আগে তার মাথার চুল বিক্রি করেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মঙ্গলবার ব্যাংক কলোনীর এক যুবক এমন কথা পোস্ট করার পরই হৈচৈ পড়ে যায়।

অনুসন্ধানে জানা যায়, করোনাভাইরাস দেখা দেয়ার আগের ঘটনা এ মুহূর্তের বলে চালানো হয়েছে। এছাড়া ও তিনি তার অভাবের কথা স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতা কারও কাছেই আগে জানাননি বলে জানা গেছে।

পৌর এলাকার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ব্যাংক কলোনী ছাপড়া মসজিদ এলাকার নান্নু মিয়ার টিনের বাড়ির একটি কক্ষে দুইমাস আগে পরিবার নিয়ে উঠেন মাটি কাটার শ্রমিক মোহাম্মদ মানিক। বিদ্যুত, গ্যাস বিলসহ মাসিক ভাড়া ২৩০০ টাকা। মানিকের সংসারে স্ত্রী সাথী, দুই পুত্র জুনায়েদ (৫) ও জুবায়ের (১৮ মাস)। তাদের গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার তাড়াইল উপজেলার সেকেন্দারনগর। বাড়ি মালিক নান্নু থাকেন কেরানীগঞ্জে।

মানিক জানান, মাটিকাটার কাজ না থাকায় দুই মাস আগে পরিবার নিয়ে তিনি সাভারে ওই বাড়িতে উঠেন। কিন্তু কাজ কম থাকায় তার পরিবারে অভাব দেখা দেয়। এ অবস্থায় অভাবে তার স্ত্রী দেড় মাস আগে এক ফেরিওয়ালার কাছে ১৮০ টাকায় নিজের মাথার চুল বিক্রি করেন।

এদিকে ওই বাড়ির এক রুমের ভাড়াটে মুইফুল বেগম পাশের এক বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করেন। মুইফুল তার গৃহকর্ত্রীকে কথা প্রসঙ্গে সাথীর চুল বিক্রির কথা বলেন তিনদিন আগে। ওই গৃহকর্ত্রী তার ভাই রাজীব মাহমুদকে এ কথা জানান। রাজীব মাহমুদ চাল, ডালসহ কিছু নিত্যপণ্য সাথীকে দিয়ে ‘বাচ্চাদের দুধের টাকার জোগার করতে চুল বিক্রি করলেন নারী’ লিখে মঙ্গলবার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। এরপর হৈচৈ শুরু হয়।

ব্যবসায়ী ওবায়দুর রহমান অভি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, সহমর্মিতা ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন ব্যক্তি চাল, ডাল, তেল, লবণ, আলুসহ নিত্যপণ্য নিয়ে ওই বাড়িতে ছুটে যান। দেয়া হয় নগদ অর্থও।

সাথী জানান, তিনি অভাবের জন্য সাহায্যের খোঁজে কারও কাছে যাননি। চুল বিক্রির কথাও আগ বাড়িয়ে তিনি কাউকে বলেননি। পাশের রুমের ‘খালা’ এসব প্রচার করেছেন। অবশ্য মুইফুল দাবি করেছেন, তিনি এতকিছু বুঝেন না। সাংবাদিকের (ফেসবুক অ্যাক্টিভিট) বোনকে বলছি তিনি তার ভাইকে বলেছেন।

আরেকটি মিথ্যা খবরে সোশ্যাল মিডিয়ায় সয়লাব। করোনায় আক্রান্ত ভিআইপিদের জন্য আলাদা হাসপাতাল তৈরি হচ্ছে, যা পুরোপুরি মিথ্যা। স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ইউসুফ ফকিরের বরাতে করোনা আক্রান্ত ভিআইপিদের জন্য আলাদা হাসপাতাল বানানোর কথা বলা হচ্ছে। যা নির্জলা মিথ্যা কথা।

সরকারের অনুরোধ, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে খবরের সত্যতা যাচাই না করে যারা এমন খবর বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার করছে, তাদের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান না নিলে আবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মত গণজমায়েত করে করোনাভাইরাস ছড়ায়ে সরকারকে বিপদে ফেলার চেষ্টা হবে।

সরকার যখন জনগণের জন্যে সামর্থ্যের সর্বোচ্চ নিবেদনের প্রচেষ্টা করছে তখন একদল রাজনৈতিক অনুপ্রবেশকারী যেমন নানা অপকর্মে বিব্রত করছে৷ তেমনি এই গুজব আর মিথ্যাচারিতার ষড়যন্ত্র মানুষের মাঝে বিতর্কিত করছে সরকার ও সরকার প্রধানকে। চলমান পরিস্থিতিতে রুখে দাঁড়াতে হবে এসব ষড়যন্ত্রকারী বিরুদ্ধে। এ সময় সরকার ও জনতার সমন্বয় বিনষ্ট হলে ঘোর বিপদে নিপতিত হবে গোটা জাতি। এমনটাই দাবি সুধী মহলের।

লেখক ● সহ সম্পাদক, দৈনিক জাগরণ

আরও পড়ুন