• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪ জুন, ২০১৯, ১০ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ০৮:২৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ১৯, ২০১৯, ০৮:২৪ পিএম

খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল

জাগরণ প্রতিবেদক 
খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল

বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঢাকা মহানগর জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল। শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরের পর এ বিক্ষোভ মিছিলে স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় নেতারা ছাড়াও নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। মিছিলটি নয়াপল্টন বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিকট এসে শেষ হয়। 

মিছিল শেষে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন ও দেশের চারবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিপুল জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিথ্যা মামলায় বেগম জিয়াকে কারাবন্দী করে রেখেছেন।’

তিনি বলেন, ভীষণ অসুস্থ বেগম জিয়াকে কারাগারে পোকা-মাকড়ে ভরা স্যাঁতস্যাঁতে কক্ষে রেখে অসুস্থতার মাত্রাকে তীব্রতর করে জীবন বিপন্ন করার মাধ্যমে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে দিতে চান প্রধানমন্ত্রী। এটি নি:সন্দেহে শেখ হাসিনার গভীর মাস্টারপ্ল্যান। খালেদা জিয়া বাকশালের গুহা থেকে গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন সেই দেশনেত্রীকে কারাগারে আটকিয়ে রাখা যাবে না, জনগণ কারাগারের লৌহ কপাট ভেঙ্গে বেগম জিয়াকে মুক্ত করবেই বলেও হুঁশিয়ারি দেন রিজভী। 

রিজভী আরও বলেন, ৩০ ডিসেম্বর আগের রাতে ভোট চুরির মাধ্যমে ক্ষমতাসীন শেখ হাসিনা জুলুম-নির্যাতন ও লুটতরাজের রাজত্ব দীর্ঘমেয়াদে চালিয়ে যেতে তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারা প্রকোষ্ঠে অন্যায়ভাবে বন্দী রেখেছেন। চিকিৎসা না দিয়ে যে ঘৃন্য অমানবিক আচরণের নজীর তিনি স্থাপন করলেন তা জাতি কোনোদিন ক্ষমা করবে না। 

তিনি অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে তাঁর পছন্দের হাসপাতালে সুচিকিৎসার সুযোগসহ নি:শর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান। 

মিছিলে স্বেচ্ছাসেবক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভুইয়া জুয়েল, সহসভাপতি গোলাম সারোয়ার, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইয়াসিন আলী,  সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদরেজ জামান, মহানগর উত্তরের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিন, সাধারণ সম্পাদক কাজী রেজওয়ান হোসেন রিয়াজ, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, সিনিয়র সহসভাপতি রফিক হাওলাদার,  উত্তরের সিনিয়র সহসভাপতি হারুন অর রশীদ, সাবেক কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনু মো. শামীম, ওয়াহিদ বিন ইমতিয়াজ বকুল, ধর্ম সম্পাদক জাকির হোসেন মিজান,  মহানগর দক্ষিণের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক শফিউদ্দিন সেন্টু,  উত্তরের বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমান সাইদুল, রফিকুল ইসলাম মাসুম,  একেএম আবুল কালাম আজাদ, সহসম্পাদক এ্যাড. মহিউদ্দিন লোবান, ফরহাদ উদ্দিন, অমিত হাসান হাফিজ, মাহমুদুল বারী, তোফাজ্জল হোসেন, সদস্য এবিএম মুকুল, আলাউদ্দিন জুয়েল, জসিম উদ্দিন, এইচএম জাফর আলী খান, জেড আই কামাল, ইঞ্জিঃ আতিক, বাবুল  সারেং,  মোকসেদ আলম আবীর,  কেন্দ্রীয় নেতা আনোয়ার হোসেন, ডা. মো. জাহেদুল কবির জাহিদ,  হাজী নুরুল্লাহ,  সরদার নুরুজ্জামান, ইউসুফ পাটোয়ারী,  গোলাম মোর্শেদ রাসেল, মো. মোর্শেদ আলম,  ডালিম, শাহে আলম,  মো. আবু জাফর বাদল, মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা কাউসার হামিদ, চাঁন মিয়া সরদার, আব্দুল মান্নান শাহীন, আসাদুজ্জামান জিসান, জহিরুল হক, জালাল আহমেদ, নাসিরুল আলম, হাসান মাহমুদ লালন, মিজানুর রহমান প্রমূখ অংশগ্রহণ করেন।

মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক গাজী রেজওয়ান হোসেন রিয়াজের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভুইয়া জুয়েল, উত্তরের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিন প্রমূখ।

মিছিল শুরু হলে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা বিএনপি চেয়ারপারসনের সুচিকিৎসা ও নি:শর্ত মুক্তির দাবিতে সোচ্চার কন্ঠে শ্লোগান দিয়ে রাজপথ কাঁপিয়ে তোলেন।

টিএস/এসএইচএস 

Space for Advertisement