• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: মে ১৫, ২০১৯, ০৪:৫৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : মে ১৫, ২০১৯, ০৪:৫৯ পিএম

নারী নির্যাতন-ধর্ষণকারীদের ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে বিচার চান নাসিম

জাগরণ প্রতিবেদক
নারী নির্যাতন-ধর্ষণকারীদের ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে বিচার চান নাসিম

নারী নির্যাতন ও ধর্ষণকারীদের বিচার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে করার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। বুধবার (১৫ মে) রাজধানীতে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেছেন, আমরা সব বিষয়ে সফল হলেও একটি বিষয় নিয়ে উদ্বিগ্ন। দেশে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বেড়ে গেছে। যা বিএনপি-জামায়াতের চেয়েও ভয়ঙ্কর। তাই আইনমন্ত্রীকে আমি অনুরোধ করছি, ট্রাইব্যুনাল গঠন করে এদের বিচার করুন। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত ওই আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নাসিম এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ’৭১-এর ঘাতকদের যদি ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে বিচার করা যেতে পারে, তাহলে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণকারীদের কেন ট্রাইব্যুনাল করে বিচার করা যাবে না। এরা বিএনপি-জামায়াতের চেয়েও ভয়ঙ্কর। আমি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে বলবো, এরা ক্রিমিনাল। এদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নিন।

নাসিম বলেন, বিএনপি এখন ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। যখন কোনো দল রাজনৈতিকভাবে ছিন্নভিন্ন হয়ে পড়ে, তখন ভয় হয়। কোনো দল রাজপথে সক্রিয় না থাকলে ষড়যন্ত্র করে। তাই ভয় পাই। তাদের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকতে হবে। 

বিএনপির সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বিএনপি হত্যা ও ক্যু এবং ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতা এসেছে। শুধু তাই নয়, আওয়ামী লীগকেও হত্যা ও ক্যু-এর মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত করেছে। তারা রাজপথের পরাজিত সৈনিক। তারা যেকোনো ষড়যন্ত্র করতে পারে। এজন্য তাদের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। 

জোটের কেন্দ্রীয় সভাপতি সারাহ বেগম কবরীর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক খাদ্যমন্ত্রী এ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, জোটের সহ-সভাপতি স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী রফিকুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, অভিনেত্রী তানভিন সুইটি, অভিনেতা মিজানুর মিজান প্রমুখ। 

এএইচএস/ এফসি

Islami Bank