• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুলাই ১৮, ২০১৯, ০১:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ১৮, ২০১৯, ০৩:১০ পিএম

সক্রিয় রাজনীতি আর নয়, দলের দুঃসময়ে পাশে থাকবেন সোহেল তাজ

জাগরণ প্রতিবেদক
সক্রিয় রাজনীতি আর নয়, দলের দুঃসময়ে পাশে থাকবেন সোহেল তাজ
সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ -ফাইল ছবি

দেশ ও দলের দুঃসময়ে পাশে দাঁড়ালেও নিজেকে আর সক্রিয় রাজনীতিতে জড়াবেন না বলে জানিয়েছেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

স্বাস্থ্য বিষয়ক একটি টিভি শো নিয়ে শিগগিরই তিনি দর্শকদের সামনে আসছেন বলেও জানান তিনি।

বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছে ভিন্নধর্মী পরিকল্পনা নিয়ে আসছেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী সোহেল তাজ। তবে কেউ কিছুই অনুমান করতে পারেনি কী সেই ভিন্নধর্মী পরিকল্পনা। অবশেষে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে পরিষ্কার হয়েছে সোহেল তাজের পরিকল্পনা। সোহেল তাজকে দেখা যাবে হটলাইন কমান্ডোতে। তবে এটা কোন যুদ্ধের ময়দানের গল্প নয়। আগামী সেপ্টেম্বর মাসে আরটিভির পর্দায় ১২ পর্বের লাইফস্টাইল বিষয়ক রিয়েলিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’র অনুষ্ঠানে সঞ্চালকের ভূমিকায় থাকবেন তিনি। সোনারগাঁও হোটেলের সুরমা মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি এই কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন। 

এ সময় অনুষ্ঠানের আয়োজক সোহেল তাজের ফিট নেশন মিডিয়ার সঙ্গে স্পন্সর র্যাং কন গ্রুপ, মিটসুবিসি মটরস ও সুজুকি মটরস, আরটিভির সঙ্গে অনুষ্ঠানটির নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান কারুজ কমিউনিকেশনের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সোহেল তাজ বলেন, ৩০ লাখ শহীদের বিনিময়ে অর্জিত সোনার বাংলা গড়তে দরকার কিছু সোনার মানুষ। আর এই সোনার মানুষ গড়তেই আমার এই উদ্যোগ। তিনি আরও বলেন, হটলাইন কমান্ড টিম দেশের বিভিন্নস্থানে গিয়ে নানা শ্রেণী-পেশার মানুষের দরজায় কড়া নাড়বে এবং জানতে চাইবে তাদের জীবন যাপনের অভ্যাস ও ধরণ, স্বাস্থ্যগত এবং কর্ম পরিবেশের নানা সমস্যার কথা। তিনি ও বিশেষজ্ঞ সদস্যরা মানুষকে সচেতন করবেন এবং হাতে কলমে জীবন যাপনের সহজ ও কার্যকর পথ বেছে নিতে সহায়তা করবেন।

তিনি আরও বলেন, রাজনীতির বাইরে থেকেও মানুষের জন্য কিছু করার ইচ্ছা থেকেই তার এ পদক্ষেপ। বহুদিন ধরেই তিনি দেশের মানুষের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য, জীবন যাপনের অভ্যাস ও ধরন, সচেতনতা ও দায়িত্ববোধের বিষয়গুলো নিয়ে ভাবছিলেন। সে ভাবনা থেকেই জন্ম লাইফ স্টাইল বিষয়ক টিভি রিয়েলিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’র।

সংবাদ সম্মেলনের শেষ পর্যায়ে প্রশ্নোত্তর পর্বে রাজনীতি নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা প্রশ্ন করলে তিনি প্রথমে কয়েকটি প্রশ্নের জবাব দিলেও পরে তা বন্ধ করে দেন। তবে তিনি বলেন, আমি, আমার পরিবার একটি রাজনৈতিক পরিবার। রাজনীতি আমাদের পরিবারের রক্ত-মাংসে মিশে আছে। আমি ওই পরিবারেরই সন্তান। ইচ্ছে করলেই আমি রাজনীতির বাইরে থাকতে পারব না।  বাংলাদেশের জন্ম, স্বাধীনতা, আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে সব সময়ই আমার পরিবার দেশ ও আওয়ামী লীগের পাশে ছিল। ভবিষ্যতেও আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে আমি দেশ ও দলের পাশেই থাকব।
 
আওয়ামী লীগের আগামী কাউন্সিলে পদ দেয়া হলে সেক্ষেত্রে কি করবেন জানতে চাইলে- সরাসরি কোনো উত্তর না দিয়ে কূটনৈতিক জবাব দেন সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, রাজনীতি একটা হচ্ছে সক্রিয়, আরেকটি হচ্ছে সক্রিয় না। এই মুহূর্তে আমার সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করার মনে হয় কোনো স্কোপ (সুযোগ) নেই। এই প্রজেক্টটা সবটুকু সময় নিয়ে নেবে। যার জন্য আমার পরিবার, আমার দুই মেয়ের কাছ থেকেও ছুটি নিয়েছি। 

 

টিএস/একেএস

আরও পড়ুন

Islami Bank