• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯, ০৪:২৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯, ০৪:২৯ পিএম

কয়েক বছর পর ঢাবিতে ছাত্রদলের মিছিল 

জাগরণ প্রতিবেদক
কয়েক বছর পর ঢাবিতে ছাত্রদলের মিছিল 
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের মিছিল - ছবি : জাগরণ

ছাত্র আন্দোলনের সূতিকাগার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিছিল করেছে বিএনপির সহযোগী সংগঠন জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ মিছিলে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে শ্লোগান দেয় নেতাকর্মীরা। মিছিলে নেতৃত্ব দেন ছাত্রদলের নতুন কমিটির নেতারা।

এদিন ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নেতাকর্মীদের নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে দেখা করেন। ক্যাম্পাসে শিক্ষার পরিবেশ যেন বিনষ্ট না হয় এ ব্যাপারে সকল ছাত্র সংগঠনকে দায়িত্বশীল ভূমিকা রাখার আহ্বান উপাচার্য। এসময় ছাত্রদলের নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ক্যাম্পাসে সকল ছাত্র সংগঠনের সহঅবস্থানের পরিবেশ তৈরির জন্য উপাচার্যের সহযোগিতার দাবি জানান।

এরপর ছাত্রদল নেতাকর্মীরা মিছিল করেন। এসময় তাদের হাতে ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই’ লেখাসহ পোস্টার দেখা যায়।

এর আগে সকাল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা মুখোমুখি অবস্থান নেন। এসময় উভয় দলের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকেন। এতে মধুর ক্যান্টিনের আশপাশ এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তবে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে ছাত্রদলের মধুর ক্যান্টিনে আগমনের খবর আগে থেকে প্রচারিত হওয়ায় সতর্ক অবস্থান নেয় ছাত্রলীগ। দীর্ঘদিন পর ছাত্রদলের নতুন কমিটি এবং ছাত্রলীগ মধুর ক্যান্টিনে একসঙ্গে অবস্থান নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বেলা ১১টায় ছাত্রদলের ক্যাম্পাসে যাওয়ার কথা থাকলেও সকাল ৮টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে শোডাউন শুরু হয়। অন্যদিকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ১০টার পর মধুর ক্যান্টিনে এলেও আজ ৮টা থেকে আসা শুরু করেন। 

বেলা ১১টার দিকে ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল নেতাকর্মীসহ মধুর ক্যান্টিনে প্রবেশ করেন। এসময় ছাত্রদলের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী তাদের অভিনন্দন জানান। 

সভাপতি ও সম্পাদককে ক্যাম্পাসে পেয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মধ্যে উদ্দীপনা বিরাজ করে। ছাত্রদলের সর্বশেষ কমিটি বেশিরভাগ সময়ই ক্যাম্পাসছাড়া ছিল। ডাকসু নির্বাচনের সময় শুধু কয়েকবার তারা ক্যাম্পাসে আসেন।                           

টিএস/ এফসি

আরও পড়ুন