• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯, ০৬:৫৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯, ০৬:৫৯ পিএম

মদ জুয়া উদাম-নৃত্য জিয়াউর রহমানই চালু করে : তথ্যমন্ত্রী

জাগরণ প্রতিবেদক
মদ জুয়া উদাম-নৃত্য জিয়াউর রহমানই চালু করে : তথ্যমন্ত্রী
ড. হাছান মাহমুদ - ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশে মদ জুয়া হাউজি বন্ধ করেছিলেন। কিন্তু মদ জুয়া হাউজি উদাম-নৃত্য এগুলো আবার জিয়াউর রহমানই চালু করেছিল। সেই ধারাবাহিকতায় যখন বেগম খালেদা জিয়া ’৯১ সালে ক্ষমতাগ্রহণ করেন তখন কিন্তু এই ক্যাসিনো কালচার আবার ষোলকলায় পূর্ণ করেন। 

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) বিকালে রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে ‘বর্তমান সরকারকে জুয়াড়ি’ সরকার হিসেবে মির্জা ফখরুলের খেতাব দেয়ায় প্রতিক্রিয়ায় এমন মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী।

মির্জা ফখরুলকে আয়নায় নিজেদের চেহারা দেখার পরামর্শ দিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, মির্জা আব্বাস, সাদেক হোসেন খোকা এবং মোসাদ্দেক হোসেন ফালু- উনারা বিভিন্ন ক্লাবের ক্যাসিনোর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তারাই আবার শুরু করেছেন। ক্যাসিনো দীর্ঘদিন ধরে দেশে চলে আসছে। হঠাৎ করে হয়নি এগুলো। 

চলমান অভিযানে কাউকে ছাড় দেয়া হচ্ছে না জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, এগুলোকে সমূলে উৎপাটনের জন্য প্রধানমন্ত্রী সমূলে অভিযান শুরু করেছেন। সেখনে কে কোন মতের, কে কোন পথের- সেটি দেখা হচ্ছে না। আমি মনে করি, এজন্য সরকারকে সাধুবাদ জানানো দরকার বিএনপি মহাসচিবের।

বিএনপির উদ্দেশে আওয়ামী লীগের এই নেতা আরো বলেন, তোমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান- উনি তো বড় অজগর সাপ। যেটা সব গিলে খেয়ে ফেলে। তার নেতৃত্বেই তো হাওয়া ভবন খোলা হয়েছিল। এবং হাওয়া ভবন খুলে সেখানে দশ পারসেন্ট কমিশন বাণিজ্য করা হত। খোয়াব ভবন খুলে আমোদ ফূর্তি করা হত। সুতরাং বিএনপির এটি নিয়ে কথা বলারই তো নৈতিক অধিকার নেই, যারা দেশটাকে পরপর পাঁচবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন বানিয়েছিল।

ব্রিফিংয়ের পর প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জাব্বার, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, সংসদ সদস্য শেখ সারহান নাসের তন্ময়, প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব আশরাফ সিদ্দিকী বিটু, রাশেক রহমান, ইঞ্জিনিয়ার তন্ময় আহমেদ মুনসহ আরো অনেকে।

এএইচএস/ এফসি

আরও পড়ুন