• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ৬, ২০১৯, ১০:৪৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ৬, ২০১৯, ১০:৪৮ পিএম

কেরানীগঞ্জ কারাগারের বিশেষ সেলে সম্রাট

হালিম মোহাম্মদ
কেরানীগঞ্জ কারাগারের বিশেষ সেলে সম্রাট
র‌্যাবের হাতে আটক ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাট-ছবি : কাশেম হারুন

কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয়েছে গ্রেফতার যুবলীগের বরখাস্ত সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী ওরফে সম্রাটকে। সেখানে কারা কর্তৃপক্ষের কৃপায় সম্রাটকে একটি বিশেষ সেলে রাখা হয়েছে। অবশ্য কারা কর্তৃপক্ষ বিশেষ সেলের বিষয়টি গোপন করে যাচ্ছে। সেখানেই থাকবেন সম্রাট।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কারা অফিসার জানান, জেলে সম্রাটের লোকজনের অভাব নেই। তিনি এখানে ভালো থাকবেন। টেনশন মুক্ত থাকবেন। কারাবিধি অনুযায়ী তাকে সকল সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে। তিনি জানান, তাকে নেয়ার পর কারাগারের মূল ফটকের পাশে বন্দি চেকআপে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। কারাগার হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. বিপ্লব কুমার সম্রাটের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। এরপরই কারাগারের বন্দি আইনের অংশ হিসেবে সম্রাটের পরিচয়, শরীরের লক্ষ্যযোগ্য চিহ্নসহ বন্দির সকল তথ্য লিপিবদ্ধের মাধ্যমে প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। এ সময় স্বজনরা তার সাথে সাক্ষাৎ করেন। তাকে শুকনো খাবার, ব্যবহারিক কাপড়-চোপড়, ব্রাশ, টুথপেস্টসহ বিভিন্ন সামগ্রী দেন। এর পরই তাকে একটি বিশেষ সেলে নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ বলেছে, যুবলীগ নেতা কারাবন্দি সম্রাটকে সাধারণ বন্দির মতো প্রথম দফায় কারাগারের আমদানি ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। রাতে তাকে জেলকোড অনুযায়ী খাবার দেয়া হলেও তিনি খান নি। তাকে অনেকটা চিন্তিত দেখা গেছে।

এ বিষয়ে কারা অধিদফতর ডিআইজি প্রিজন্স ঢাকা বিভাগ টিপু সুলতান বলেন, সন্ধ্যার পর যুবলীগ নেতা সম্রাটকে কারাগারে নিয়ে আসা হয়েছে। তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। তিনি সুস্থ আছেন। তাকে জেল কোড অনুযায়ী সকল সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে।

সম্রাটকে তার কার্যালয় থেকে বের করে ঢাকার কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। সন্ধ্যা ৭টায় তাকে নিয়ে রওয়ানা হয় র‌্যাব। এর আগে তার কার্যালয়ে বন্যপ্রাণির চামড়া রাখার দায়ে ক্যাসিনো সম্রাট খ্যাত যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে ছয় মাসের জেল দিয়েছেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।

রোববার (৬ অক্টোবর) দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল কাকরাইলে ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে তালা ভেঙে সম্রাটের কার্যালয়ে ঢুকে অভিযান শুরু করে। কার্যালয় থেকে একটি পিস্তল, বিপুল পরিমাণ বিদেশি মদ ও দুটি বণ্যপ্রাণির চামড়া পাওয়া যায়।

এইচএম/এসএমএম

আরও পড়ুন