• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭
প্রকাশিত: জুলাই ২, ২০২০, ১১:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ২, ২০২০, ১১:১৭ পিএম

বিএনপির এমপিরা সংসদ অবমাননা করেছেন: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিএনপির এমপিরা সংসদ অবমাননা করেছেন: কাদের
ফাইল ছবি

ঢাকা: বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্যদের বাজেট প্রত্যাখ্যান করার নামে সংসদ ভবনের সামনে বাজেটের কপি ছিঁড়ে ফেলে দেয়ার কঠোর সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, "এটি মহান সংসদের প্রতি চরম অবমাননা।"

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিকেলে জাতীয় সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট অনুমোদন পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে নিজের সরকারির বাসভভনে এ কথা বলেন তিনি।

বাজেটের কপি ছিড়ে ফেলার ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, "এটি তাদের শপথ ভঙ্গেরও শামিল। জাতির এই ক্রান্তিকালে তারা দায়িত্বশীল আচরণ করে নি। তারা চেয়েছিল, সংসদ যাতে কোন বাজেট পাশ না করে। বাজেট ছাড়া একটি রাষ্ট্র তারা দেখতে চেয়েছিলেন। তারা দেশে একটি হতাশাজনক অবস্থা দেখতে চেয়েছিল। আমরা মানুষের মধ্যে আশার আলোর সঞ্চার করতে পেরেছি, যা এই পেনডেমিক পরিস্থিতিতে অত্যন্ত প্রয়োজন।”

তিনি বলেন, "প্রধানমন্ত্রী তার ভাষণে এই বাজেটের প্রেক্ষাপট, বৈশ্বিক পরিস্থিতিসহ দেশীয় বাস্তবতা, করোনা পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে এদেশের মানুষের জন্য তার সরকারের নানামুখী উদ্যোগ ও সহায়তা এবং বাংলাদেশকে একটি সুখী সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে তাঁর গৃহীত পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন। বাংলাদেশ তথা বিশ্ব মানবতার এই ক্রান্তিলগ্নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার এই ভাষণ বাঙালী জাতির ইতিহাসে এক ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে।"

দুর্ভাগ্যজনকভাবে এই পেনডেমিকের সময়ই আমাদের বাজেট প্রণয়ন করতে হয়েছে উল্লেখ করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, "পৃথিবীর অধিকাংশ দেশের আর্থিক বছরের গণনা আমাদের চেয়ে ভিন্ন হওয়ায় (যেমন জানুয়ারি টু ডিসেম্বর, এপ্রিল টু মার্চ, অক্টোবর টু সেপ্টেম্বর) তাদের এই সময়ে বাজেট করতে হয়নি। বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ ৫ লক্ষ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। অথচ এই সময়ে যে সকল দেশ বাজেট প্রণয়ন করেছে, তাদের অধিকাংশই করোনা পরিস্থিতির কারণে তাদের বাজেট উল্লেখযোগ্যভাবে সংকোচন করেছে। কোন কোন দেশ বাজেট দিতে ব্যর্থ হয়ে বিশেষ আইনের সহায়তায় বাজেট প্রণয়ন স্থগিত করেছে। এই সময়ে দক্ষিণ এশিয়ার দুই একটি দেশসহ (যেমন পাকিস্তান) পৃথিবীর অনেক দেশে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

তিনি বলেন, “কোভিড-১৯-এর প্রভাবে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতে যে সাময়িক প্রয়োজন উদ্ভূত হয়েছে তা মেটানো এবং অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে যে ক্ষয়-ক্ষতি সৃষ্টি হবে তা পুনরুদ্ধারের কৌশল বিবেচনায় নিয়ে এই বাজেট প্রস্তুত করা হয়েছে। এ বাজেটে অর্থনৈতিক পুনর্গঠন এবং করোনাভাইরাস মোকাবেলায় জীবন ও জীবিকা রক্ষার উপর প্রাধান্য দেয়া হয়েছে।"

জাগরণ/এমটিআই