• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: অক্টোবর ১২, ২০১৯, ০৮:৪৯ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : অক্টোবর ১২, ২০১৯, ০৮:৪৯ পিএম

যেসব পাপ মানুষকে বিপর্যয়ের দিকে ধাবিত করে!

মাওলানা এম,এ,করিম ইবনে মছব্বির
যেসব পাপ মানুষকে  বিপর্যয়ের দিকে ধাবিত করে!

 


মানবজাতি পূর্ণ বিবেক বুদ্ধি থাকা সত্ত্বে ও এমন কিছু পাপাচারে লিপ্ত হয়, যার কৃতকার্যের নিরেট শাস্তি ইহজগত এবং পরজগতে ভোগতে হয়! উল্লেখযোগ্য পাপাচার সমূহ!

এক :  মহান আল্লাহ পাকের পবিত্র সত্ত্বা ও তাঁর গুণাবলীর যে কোন একটির সাথে অন্য কোনো বস্তুকে অংশীদারি করাকে শিরক বলে!
শিরক এমন অমার্জনীয় অপরাধ যে আল্লাহ পাক কোন কিছুতেই ক্ষমা করবেন না! এ প্রসঙ্গে আল্লাহ পাক ঘোষণা করেন যে, নিশ্চয় আল্লাহ তাঁর সাথে শিরক করাকে অপরাধ মার্জনা করবেন না, এতদ্বব্যতীত অন্য যে কোনো গুনাহের ব্যাপারে যাকে ইচ্ছা তিনি ক্ষমা করতে পারেন (সুরায়ে-নিছা-৪৮) রাসূল (সা:) বলেন, তোমাদেরকে ক্বাতল করা অথবা আগুনে পুড়িয়ে দেয়া হয় তবুও আল্লাহর সাথে কাউকে শরিক করোনা!

দুই : মাতা পিতার অবাধ্য হওয়া বা তাঁদের কে কষ্ট দেয়া থেকে বিরত থাকা! আল্লাহ পাক বলেন তোমার সৃষ্টি কর্তার নির্দেশ তিনি আল্লাহ ব্যতীত আর কারো ইবাদত না করতে, আর মাতা পিতার সাথে যেন উত্তম ব্যবহার করতে (বণী ইসরাইল-২৩)

তিন:- জেনে শুনে কারো ধন সম্পদ বা এতিমদের সম্পদ ভোগ করোনা!- আল্লাহ বলেন নিশ্চয় যারা এতিমদের সম্পদ অন্যায়ভাবে ভোগ করে তাঁহারা যেনো নিজের পেটে অগ্নিছাড়া আর কিছুই পুরিতেছেনা এবং শীঘ্রই তাহারা জ্বলন্ত আগুনে প্রবেশ করিবে ( সুরায়ে নিছা-


চার:- মানবহত্যা:- কেও যদি কোন মানুষকে হত্যা করে সে যেনো গোটা জাতিকে হত্যা করলো, আল্লাহ পাক বলেন ভু-পৃষ্ঠে অশান্তি সৃষ্টি করিয়া বেড়ায় তাহাদের শাস্তি ইহাই যে, যে তাদেরকে হত্যা করা হইবে অথবা শুনে চড়ানো হইবে! (সুরায়ে মাইদাহ-৩২)

পাঁচ:- যাদুবিদ্যা বা যাদুমন্ত্র সম্পূর্ণ ইবলিশ শয়তান এবং বিধর্মীদের গর্হিত কাজ, এ প্রসঙ্গে আল্লাহ বলেন,  তারা অনুসরন করলো এমন সব শয়তানি কাজের চর্চা সুলাইমান (আ:) কোন কুফরি করেন নাই, কিন্তু শয়তানরা যাদুমন্ত্রের কথায় ও কাজে কুফুরিতে সম্পৃক্ত ছিল, এমন সব যাদু-বিদ্যা যার দ্বারা বিচ্ছেদ ঘটতো স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে! (সুরায়ে বাক্বারা-১০২)

ছয়:- যুদ্ধ ক্ষেত্র রমাঙ্গল থেকে পলায়ন করা, আল্লাহ বলেন হে মুমিনগণ যখন তোমরা কাফিরদের সহিত সম্মুখ ভাগের সমরে লিপ্ত হবে, তখন পিছু হটোনা, এ ছাড়া যে ব্যক্তি যুদ্ধ ময়দান থেকে পলায়ন করিবে সে আল্লাহর গজবে পতিত হইবে, এবং তাহার ঠিকানা জাহান্নাম হবে (আনফাল-১৫)

উপরোক্ত অমার্জিত পাপাচার সমূহ আমাদিগফে সমুলে ইহকালীন এবং পরকালীন জীবনে বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দেয়, আল্লাহ পাক আমাদের সবাইকে কঠিন পাপাচার থেকে হেফাজত কুরণ আমীন।


লেখক : কলামিস্ট, সাবেক ইমাম ও খতীব জাতীয় সংসদ