• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৮, ২০২০, ০৯:৩৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৮, ২০২০, ০৯:৩৬ পিএম

যৌতুকবিহীন ৮৬ বিয়ে

রোববার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত

মো. আমির আলী, গাজীপুর
রোববার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত
বিশ্ব ইজতেমায় মুসল্লীরা - ফাইল ছবি

টঙ্গীর তুরাগ নদের পূর্ব তীরে বিশ্ব মুসলিম জাহানের দ্বিতীয় বৃহত্তর ধর্মীয় সমাবেশ বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শনিবার (১৮ জানুয়ারি) ৮৬টি যৌতুকবিহীন বিয়ের মধ্য দিয়ে অতিবাহিত হয়েছে। আগামীকাল রোববার (১৯ জানুয়ারি) জোহরের নামাজের আগে ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন ভারতের মাওলানা জামশেদ।

এর আগে শনিবার বাদ ফজর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা মুরসালিন। মুসল্লিদের উদ্দেশে তার বয়ান শেষে বিভিন্ন খিত্তায় নিজেদের মধ্যে বয়ান নিয়ে আলোচনা করা হয়। বাদ জোহর বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আব্দুস সাত্তার, বাদ আসর বয়ান করেন মাওলানা মোশারফ হোসেন ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন ভারতের মাওলানা জমশেদ। এসব বয়ান বাংলাসহ বিভিন্ন ভাষায় তাৎক্ষণিক তরজমা করে মুসল্লিদের শোনানো হয়।

বয়ান
ইমান, আখলাক, দিনের ওপর মেহনত, ইসলামকে শক্তিশালী করা, সকল ভেদাভেদ ভুলে নিজের দেশ ও মুসলিম উম্মাহর শান্তি বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখা, নবীওয়ালা কাজে দিন ও সময় ব্যয় করা। পৃথিবীতে শান্তির বাণী ছড়িয়ে দেয়া, ইসলামকে প্রতিষ্ঠিত করা, নামাজ-রোজা ও আল্লাহর ইবাদত পালনের ওপর বয়ান পেশ করা হয়। বিশ্ব ইজতেমার আয়োজক কমিটির মুরব্বি মাওলানা আশরাফ আলী জানান, হেদায়েতি বয়ান শেষে আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন মাওলানা জামশেদ। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) রাতে তাবলিগ জামাতের মুরব্বিদের বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত হয়।

যৌতুকবিহীন ৮৬ বিয়ে
শনিবার মূল বয়ান মঞ্চে যৌতুকবিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত না হলেও ইজতেমা ময়দানের বিশেষ কামরায় (কক্ষে) বর ও কনের অভিভাবকদের উপস্থিতিতে ৮৬টি যৌতুকবিহীন বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বিয়েতে মোহরানা ধার্য করা হয় ‘মোহর ফাতেমি’র নিয়ম অনুযায়ী। এই নিয়ম অনুযায়ী মোহরানার পরিমাণ ধরা হয় ১৫০ তোলা রুপা বা এর সমমূল্য অর্থ ১ লাখ ৫ হাজার টাকা।

আরো ৪ মুসল্লির মৃত্যু
বিশ্ব ইজতেমায় আসা আরো ৪ মুসল্লি মারা গেছেন। তারা হলেন রংপুরের পীরগঞ্জ থানার ওসমানপুর এলাকার মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে হুমায়ুন কবির (৬০), ঝিনাইদহ সদরের কালাহাট গোপালপুর এলাকার লুৎফর রহমানের ছেলে আ ফ ম জহুরুল আলম (৬৫), ঢাকার তুরাগ থানাধীন নলভোগ এলাকার ফজলুর রহমানে ছেলে ইলিয়াস মিয়া (৮৫) এবং গাইবান্ধার সাঘাটা থানার কামালেরপাড়া এলাকার ভিলু হাজীর ছেলে আব্দুর সোবাহান (৬৫)। এ নিয়ে দ্বিতীয় পর্বে ৭ জন মুসল্লির মৃত্যু হলো।

বিদেশি মুসল্লিদের অংশগ্রহণ
ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনই জর্ডান, লিবিয়া, আফ্রিকা, লেবানন, আফগানিস্তান, ফিলিস্তিন, যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক, ইরাক, সৌদি আরব, ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ডসহ বিশ্বের ৩৫টি দেশ থেকে দেড় সহস্রাধিক মুসল্লি আসেন। ভাষাভাষী ও মহাদেশ অনুসারে ময়দানে রয়েছেন বিদেশি মেহমানরা।

এনআই