• ঢাকা
  • সোমবার, ০১ মার্চ, ২০২১, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১, ০৯:৪২ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১, ০৯:৪২ পিএম

চীনের মহাকাশ অভিযান

মঙ্গলগ্রহের ছবি পাঠালো তিয়ানওয়েন-১

মঙ্গলগ্রহের ছবি পাঠালো তিয়ানওয়েন-১

মঙ্গলগ্রহের কক্ষপথে প্রবেশের আগে প্রথমবার গ্রহের পৃষ্ঠের ছবি পাঠিয়েছে চীনের মহাকাশযান তিয়ানওয়েন-১। শনিবার মঙ্গলগ্রহের একটি ছবি প্রকাশ করে চীনের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র ন্যাশনাল স্পেস এডমিনিস্ট্রেশন।

চীনের প্রকাশিত ছবিতে মঙ্গলগ্রহের পৃষ্ঠে গিরিখাত ছাড়াও এর বিচিত্র ভৌগলিক দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, কয়েক মাসের মধ্যেই এই মহাকাশযানটি মঙ্গলগ্রহে অবতরণের প্রস্তুতি নিবে।

মঙ্গলপৃষ্ঠের প্রায় ১৪ লাখ মাইল দূর থেকে এই ছবি তুলেছে মহাকাশযানটি। শুক্রবার ১৪ লাখ মাইল দূরে থাকা অবস্থাতেই এই স্বয়ংক্রিয় এই রোবট-মহাকাশযান নিজের গতি কমাতে শুরু করেছে। ১০ ফেব্রুয়ারি এটি মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশের আগে অভিকর্ষজ বলের আকর্ষণ এড়াতে আরও ধীরগতিতে সামনে আগাতে থাকবে।

গত বছরের জুলাইতে এই মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করে চীন। ১০ ফেব্রুয়ারি এটি মঙ্গলের কক্ষপথে প্রবেশ করবে। ধারণা করা হচ্ছে সব ঠিক থাকলে এ বছরের মাঝামাঝি সময়ে মঙ্গলপৃষ্ঠ স্পর্শ করতে পারবে তিয়ানওয়েন-১। 

পাঁচ টন ওজনের এই মহাকাশযানের সঙ্গে প্রদক্ষিণ ও অবতরণ যন্ত্র ছাড়াও স্ব-নিয়ন্ত্রিত রোভার বা পরিবহণ যান রয়েছে। যেটির মাধ্যমে অবতরণের পর মঙ্গলপৃষ্ঠে ঘুরে বেড়াবে এটি। আর সংগ্রহ করবে গ্রহের মাটি, শিলাপাথরসহ বিভিন্ন নমুনা। মঙ্গলগ্রহের সবচেয়ে সমতল জায়গা ইউটোপিয়াতে অবতরণের চেষ্টা করবে এই মহাকাশযান।

২০০৩ সালে মহাকাশে প্রথম মানুষ প্রেরণের পর থেকেই বিভিন্ন গ্রহের মহাকশযান পাঠানোর পরিকল্পনা করছে চীন। সেনাবাহিনী পরিচালিত এই অভিযানে সফল করতে কয়েক বিলিয়ন ডলার খরচ করছে চীন সরকার। ২০২২ সালের মধ্যে পৃথিবীর বাইরে একটি স্পেস স্টেশনও তৈরিও প্রস্তুতি চলছে। এ পর্যন্ত চীন ছাড়াও মঙ্গলগ্রহে মহাকাশযান পাঠাতে চেষ্টা করেছে যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ, রাশিয়া, জাপান ও ভারত। তবে কারো অভিযানই সফল হয়নি।

আরও পড়ুন