• ঢাকা
  • বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯
প্রকাশিত: নভেম্বর ১০, ২০২১, ০১:২৬ এএম
সর্বশেষ আপডেট : নভেম্বর ৯, ২০২১, ০৭:২৬ পিএম

নতুন নির্দেশনা

অব্যবহৃত মোবাইল ডেটা পরবর্তী প্যাকেজে যোগ হবে

অব্যবহৃত মোবাইল ডেটা পরবর্তী প্যাকেজে যোগ হবে
প্রতীকী ছবি

মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে নতুন নির্দেশিকা প্রস্তুত করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। নির্দেশিকা বাস্তবায়ন হলে গ্রাহকদের অব্যবহৃত ডেটা ফেরত পাওয়ার পথ সহজ হবে।

নির্দেশিকায় মোবাাইল ফোন অপারেটরদের ইন্টারনেট প্যাকেজের ক্ষেত্রে সংখ্যাও নির্দিষ্ট করে দেয়া হয়েছে। এই নির্দেশিকা ২০২২ সালের আগামী ১ মার্চ থেকে কার্যকর হবে।

বিটিআরসি জানায়, মোবাইল ফোনের একজন গ্রাহকের ডেটা প্যাকেজ শেষ হওয়ার পর অব্যবহৃত ডেটা পরবর্তী প্যাকেজের সঙ্গে যোগ হবে। তবে গ্রাহককে ওই প্যাকেজের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই একই ডেটা প্যাকেজ কিনতে হবে। ভিন্ন ভিন্ন মেয়াদ হলেও অব্যবহৃত ডেটা যোগ হবে। কোনও গ্রাহক তিন দিন মেয়াদের তিন জিবি’র কোনও প্যাকেজ কিনলে তিন দিন শেষ হওয়ার আগেই তাকে তিন জিবি’র প্যাকেজ কিনতে হবে। সেটা ৩, ৭, ১৫ অথবা ৩০ দিন- যেকোনো মেয়াদে হতে পারে। বর্তমানে একই মেয়াদের প্যাকেজ কিনলে অব্যবহৃত ডেটা যোগ হয়।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি’র এক অনুষ্ঠনে ‘মোবাইল ডেটা প্যাকেজ নির্দেশিকা’ নিয়ে এক উপস্থাপনায় এসব তথ্য জানানো হয়। এতে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব খলিলুর রহমান এবং মোবাইল অপারেটরদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে জানান হয়, অপারেটরদের ইন্টারনেট প্যাকেজের ক্ষেত্রে সংখ্য নির্দিষ্ট করে দেয়া হয়েছে। মোবাইল অপারেটরদের সর্বোচ্চ তিন ধরনের প্যাকেজ থাকবে। নিয়মিত প্যাকেজ, গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ ও রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট প্যাকেজ। একটি অপারেটরের নিয়মিত ও গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ মিলিয়ে সর্বোচ্চ প্যাকেজ সংখ্যা হবে ৮৫। তবে নিয়মিত অথবা গ্রাহককেন্দ্রিক বিশেষ প্যাকেজ সংখ্যা এককভাবে ৫০টির বেশি হতে পারবে না।

মোবাইল ফোন অপারেটরের রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কাজের জন্য সর্বোচ্চ ১০টি প্যাকেজ ব্যবহার করা যাবে। প্যাকেজের ভিন্নতা নির্ধারণের ক্ষেত্রে দুটি প্যাকেজের মধ্যে ন্যূনতম পার্থক্য হবে ১০০ মেগাবাইট ডেটা অথবা ১০ মিনিট টকটাইম অথবা উভয়ই।

বিটিআরসি জানায়, মোবাইল অপারেটরদের ইন্টারনেট প্যাকেজ নিয়ে বিটিআরসির গণ শুনানিতে গ্রাহকদের আপত্তির পর গত ১২ সেপ্টেম্বর ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী ও সচিবের উপস্থিতিতে বিটিআরসি এবং মোবাইল ফোন অপারেটরদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি সভা হয়। ওই সভার প্রস্তাব থেকেই ডেটা প্যাকেজ নিয়ে নির্দেশিকাটি তৈরি হয়েছে।

জাগরণ/এসএসকে/এমএ