• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
প্রকাশিত: এপ্রিল ২০, ২০১৯, ০৭:৫৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : এপ্রিল ২১, ২০১৯, ০১:৫৩ এএম

টটেনহ্যামকে হারিয়ে ফের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে সিটি 

ক্রীড়া ডেস্ক
টটেনহ্যামকে হারিয়ে ফের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে সিটি 
গোলের পর পুরো দলের সঙ্গে ফোডেনের উদযাপন - ছবি : টুইটার

শেষ তিন ম্যাচের তিনটিতেই জয়। পাঁচ ম্যাচে নেই কোনো হার। ঘরের মাঠ ইতিহাদে সেই পরিসংখ্যানকে আরও একটু পোক্ত করার জন্যই আজ শনিবার (২০ এপ্রিল) টটেনহ্যাম হটস্পারের বিরুদ্ধে মাঠে নামে ম্যানচেস্টার সিটি। হলোও তাই। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে স্পারসদের সিটিজেনরা হারিয়েছে ১-০ গোলে। 

আগের সপ্তাহেই টটেনহ্যামের কাছে ‘অ্যাওয়ে’ গোলের খড়গে পড়ে ইউরোপ সেরার মঞ্চ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ থেকে বিদায় নিতে হয় সিটিকে। ম্যাচটা সিটির কাছে ছিল তাই প্রতিশোধ নেয়ারও! তবে লীগ ম্যাচের জয় কী আর চ্যাম্পিয়নস লীগ থেকে বিদায় নেয়ার ক্ষতে প্রলেপ দিতে পারে? হয়তো এই ম্যাচটা পাড়বে। কারণ এই জয়েই যে ফের লিভারপুলকে হটিতে লীগ টেবিলের শীর্ষস্থানে উঠে এল স্কাই-ব্লুজরা। 

লীগের এখন যে অবস্থা তাতে যেকোনো ম্যাচে পা হড়কালেই শিরোপা হাতছাড়া হতে পারে সিটি বা লিভারপুলের। তাই প্রত্যেকটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ দুদলের জন্য। সেই গুরুত্বকে প্রাধান্য দিয়েই ইতিহাদে প্রায় পূর্ণশক্তির দল নামান সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা। এর মধ্যে মিডফিল্ডে সুযোগ পাওয়া তরুণ ফিল ফোডেনই গড়ে দেন ম্যাচের ভাগ্য। 

ম্যাচের মাত্র ৫ মিনিটে টটেনহ্যাম কিছু বুঝে ওঠার আগেই স্কোরশিটে নিজের নাম তোলেন ১৮ বছর বয়সী ফোডেন। উইঙ্গার বার্নার্ডো সিলভা ডান পাশ থেকে ক্রস ফেলেন ডি-বক্সে। তা মাথা ছুঁইয়ে স্পারস গোলরক্ষক হুগো লরিসকে ফাঁকি দিয়ে পৌঁছে দেন ফোডেনকে। গোলমুখে আর কোনো বাধা না থাকায় তা সহজেই জালে জড়ান ফোডেন। 

এরপর এগিয়ে যেতে আরও কয়েকবার স্পারসদের দুর্গে আক্রমণ চালায় সিটিজেনরা। তবে আগুয়েরো, স্টার্লিংদের আক্রমণগুলো বারবার ব্যর্থ হয় টটেনহ্যামের ডিফেন্ডার ও গোলরক্ষক লরিসের প্রচেষ্টায়। এদিকে ম্যাচে ফিরতে আক্রমণ চালায় অতিথিরাও। তবে সিটির জমাট রক্ষণের সামনে পেরে উঠছিলেন না লুকাস মৌরা, সন হিউং - মিন ও ডেলে আলীরা। শেষতক, তাই ১-০ গোলের জয়ে পূর্ণ ৩ পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়ে ম্যানসিটি। 

এ জয়ে ৩৪ ম্যাচ শেষে ৮৬ পয়েন্ট নিয়ে ফের টেবিলের শীর্ষস্থান ফিরে পেয়েছে লীগের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। অন্যদিকে হারে সেরা চারে থেকে লীগ শেষ করার পথটা কঠিনই করে ফেলল মাউরিসিও পচেত্তিনোর ছাত্ররা। 

এসএইচএস