• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬
Bongosoft Ltd.
প্রকাশিত: জুন ১২, ২০১৯, ০৭:২০ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুন ১২, ২০১৯, ০৭:২২ পিএম

ওয়ার্নারের সেঞ্চুরির পরও ৫০ ওভার খেলতে পারল না অজিরা 

ক্রীড়া ডেস্ক
ওয়ার্নারের সেঞ্চুরির পরও ৫০ ওভার খেলতে পারল না অজিরা 

অস্ট্রেলিয়ান ইনিংসের শুরুটা দেখে কে ভেবছিল সাড়ে ৩০৭ রানেই থেমে যাবে তাদের রানের চাকা! দুই ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার মিলে ২২ ওভারেই তুলে ফেলেছিলেন ১৪৬ রান। তার ওপর আজ পাকিস্তানী ফিল্ডারদের ফিল্ডিং হয়েছে পাড়ার ক্রিকেটের মতো। তাই মনে হচ্ছিল, আজ বুঝি চারশ রানই পেরিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া! 

কিন্তু ৪০০ তো দূরের কথা, শেষমেশ অজিরা অলআউট হলো ৩০৭ রানে! ওয়ার্নার, ফিঞ্চের পর আর কেউই বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারেননি পাকিস্তানি বোলারদের সামনে। দুর্দান্ত বল করে ১০ ওভারে মাত্র ৩০ রান খরচায় ৫ উইকেট শিকার করেছেন মোহাম্মদ আমির। শাহীন আফ্রিদি ২টি, ওয়াহাব রিয়াজ, হাসান আলি ও মোহাম্মদ হাফিজ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট। 

এর আগে টন্টনে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। পিচে প্রচুর ঘাস থাকায় পেসাররা বাড়তি সুবিধা পেতে পারেন, চিন্তা থেকেই হয়তো ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্রুত ব্রেকথ্রু এনে দেয়া লেগ স্পিনার শাদাব খানকে বসিয়ে ফাস্ট বোলার শাহীন আফ্রিদিকে একাদশে নিয়েছিল পাকিস্তান। দুর্দান্ত ইয়র্কারে ভয়ানক হয়ে ওঠতে থাকা গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে বোল্ড করে ও সেঞ্চুরিয়ান ডেভিড ওয়ার্নারকে ইমাম উল হকের ক্যাচে পরিণত করে সেই আস্থার যথাযথ প্রতিদানই দিয়েছেন শাহীন। 

অন্যদিকে স্পিনার কমিয়েছে অস্ট্রেলিয়াও। অ্যাডাম জাম্পার বদলে কেন রিচার্ডসন সুযোগ পেয়েছেন আজ। ইনজুরির কারণে অজি দলে থাকছেন না অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস। তার বদলে দলে এসেছেন শন মার্শ।

টসে হেরে ব্যাট করতে নামা অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নারের কাছে শুরুতেই পাত্তাই পাচ্ছিল না পাকিস্তানের বোলাররা। কিন্তু সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে ব্যক্তিগত ৮২ রানে ফিঞ্চ আউট হয়ে ফিরে গেছেন সাজঘরে।  

অন্যদিকে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে এসে অবশেষে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন বিধ্বংসী অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। ১০২ বলে ক্যারিয়ারের পনেরতম সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন ওয়ার্নার। সেঞ্চুরি তোলার পথে ওয়ার্নার বাউন্ডারি মেরেছেন ১০টি, ছক্কা ১টি।   

তবে স্টিভ স্মিথ, উসমান খাজা ও শন মার্শরা ব্যর্থ ছিলেন আজ। ১০ বলে ২০ রান করে ঝড় তুলেও এগোতে পারেননি ম্যক্সওয়েল। মূলত ডেথ ওভারে পাকিস্তানি বোলাররাই গড়ে দিয়েছেন ব্যবধান। চার পেসারের অসাধারণ বোলিংয়ের কারণে ফিল্ডিংয়ে পাকিস্তানের সব শিশুসুলভ ভুল ধুয়ে মুছে গেছে। 

জয়ের জন্য ৫০ ওভারে ৩০৮ রান করতে হবে পাকিস্তানকে। টন্টনের অপেক্ষাকৃত ছোট বাউন্ডারিতে অজি পেসারদের শুরুতে সামলাতে পারলে কাজটা সহজ হয়ে যাবে পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের জন্য। 

এমএইচএস 

Space for Advertisement