• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: জুলাই ১১, ২০১৯, ০৭:১৭ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ১১, ২০১৯, ০৭:১৭ পিএম

ওয়ালটনের বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দিলেন ধারাভাষ্যকার কুমার কল্যাণ

ক্রীড়া ডেস্ক
ওয়ালটনের বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দিলেন ধারাভাষ্যকার কুমার কল্যাণ

দেশীয় ইলেক্ট্রনিক ব্র্যান্ড ওয়ালটনের ফিচার ফোনের বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দিয়েছেন জনপ্রিয় বেতার ও টেলিভিশন ধারাভাষ্যকার কুমার কল্যাণ। বেতারের জন্য নির্মিত ৪০ সেকেন্ডের বিজ্ঞাপনটি ইতোমধ্যে বিভিন্ন বেতার চ্যানেলে প্রচারিত হচ্ছে।

বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দেয়া প্রসঙ্গে নিজের উচ্ছ্বাসের কথা জানিয়ে কুমার কল্যাণ দৈনিক জাগরণকে বলেন, বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উন্মাদনার ভেতর ওয়ালটন খুবই ব্যতিক্রমী একটি স্ক্রিপ্ট তৈরি করেছিল। বিজ্ঞাপনের জন্য এমন স্ক্রিপ্টে কণ্ঠ দিতে পেরে খুবই ভালো লেগেছে। ধারাভাষ্য আমার পেশা, তাই খেলার উপযুক্ত স্ক্রিপ্ট তৈরি করায় কণ্ঠ দিতে বেশ স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেছি।

বিজ্ঞাপনে কণ্ঠ দেয়ার সুযোগ করে দেয়ার জন্য ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক উদয় হাকিম, সিনিয়র উপ-সহকারী পরিচালক মামুন মাহাদি, উপ-নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আলম, অতিরিক্ত পরিচালক মিল্টন আহমেদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে কুমার কল্যাণ বলেন, উনারা প্রত্যেকেই ক্রীড়াপ্রেমী মানুষ। তাছাড়া, ওয়ালটনের দেশের বিভিন্ন খেলাধুলায় পৃষ্ঠপোষকতা করে থাকে। ক্রীড়াক্ষেত্রে তাদের এই অগ্রণী ভূমিকা সত্যিকার অর্থেই প্রশংসনীয়।

এর আগে ২০১২ সালে এয়ারটেলের সৌজন্যে রেদোয়ান রনির ফুটবল নিয়ে নির্মিত টেলিফিল্ম 'কিক অফ' এ প্রথমবারের মতো ধারাভাষ্যকার হিসেবে কণ্ঠ দিয়েছিলেন কুমার কল্যাণ।

প্রসঙ্গত, ওয়ালটনের তৈরি বিশ্বমানের ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল এবং প্রযুক্তি পণ্য ইতোমধ্যে উৎপাদন, বাজারজাতকরণ এবং রপ্তানিতে ঈর্ষণীয় সাফল্য অর্জন করেছে। এ বছর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত জাতীয় শিল্পমেলায় ওয়ালটনের স্টল পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ওয়ালটনের স্টলে এসে প্রধানমন্ত্রী দেশে তৈরি আন্তর্জাতিক মানের ল্যাপটপ, মোবাইল ফোন, ফ্রিজ, এসি, রাইস কুকারসহ বিভিন্ন হোম অ্যাপ্লায়েন্স দেখে ওয়ালটনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বাংলাদেশে তৈরি কম্প্রেসর রপ্তানি হচ্ছে জেনে তিনি খুবই আনন্দিত হন। অত্যন্ত স্বল্প দামে মোবাইল ফোন, ফ্রিজ, হোম অ্যাপ্লায়েন্সসহ বিভিন্ন প্রযুক্তিপণ্য বাজারে ছাড়ায় তিনি ওয়ালটনের প্রশংসা করেন।

দেশের প্রতিটি প্রান্তে সাশ্রয়ী মূল্যে বিভিন্ন উন্নত মানের পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে ওয়ালটন, ফলে মানুষের জীবন মান অনেক উন্নত ও আধুনিক হয়েছে। দেশের চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশে রপ্তানি হচ্ছে ওয়ালটনের তৈরি পণ্য। ওয়ালটনের ফ্রিজ, এসি, টিভি, কম্প্রেসর, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, মোবাইল ফোন, লিফট, ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস, হোম অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্সসহ বিভিন্ন পণ্য এখন দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশে রপ্তানি হচ্ছে।  

আরআইএস/এসকে

Islami Bank