• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬
প্রকাশিত: জুলাই ১১, ২০১৯, ০৭:২৩ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জুলাই ১১, ২০১৯, ০৭:২৪ পিএম

ফাইনালে যেতে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য ২২৪ রান

ক্রীড়া ডেস্ক
ফাইনালে যেতে ইংল্যান্ডের লক্ষ্য ২২৪ রান
অস্ট্রেলিয়া =র উইকেট নিয়মিতই তুলে নিয়ে উদযাপনে ব্যস্ত ছিল ইংল্যান্ড। ফটো : আইসিসি

এজবাস্টনে ২০১৯ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডকে জয়ের জন্য ২২৪ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। 

বৃহস্পতিবার (১১ই জুলাই) বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় শুরু হওয়া ম্যাচে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামা অজিরা ৪৯ ওভারে ২২৩ রানে অলআউট হয়ে যায়।

আগে ব্যাট করতে নামা অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই জোফরা আর্চারের বলে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন ফিঞ্চ। সেই সাথে সেমির মঞ্চে গোল্ডেন ডাকের লজ্জা উপহার নিয়ে ফিরে যান অজি কাপ্তান। এরপর রিভিউ নিয়েও বাঁচতে পারেননি ফিঞ্চ, বরং একমাত্র সোনার হরিণ রিভিউটিও হাতছাড়া হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ার। 

পরের ওভারেই ক্রিস ওকসের আঘাতে ব্যক্তিগত ৯ রানে জনি বেয়ারস্টোকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন টুর্নামেন্টজুড়ে দারুণ ছন্দে থাকা ডেভিড ওয়ার্নার। ওকসের ওই ওভারেই ফিরে যেতে বসেছিলেন বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা পিটার হ্যান্ডসকম্বও। আম্পায়ার আউট দিয়ে দিলে আর রক্ষা হতো না তাদের। সপ্তম ওভারে ক্রিস ওকসের করা প্রথম বলে মাত্র ৪ রান করেই বোল্ড হন পিটার হ্যান্ডসকম্ব। তখন অজিদের স্কোর দাঁড়ায় ৩ উইকেটে ১৪ রান। 

চতুর্থ উইকেটে স্মিথের সঙ্গে দারুণ জুটি গড়ার পর আদিল রশিদের বলে লেগ সাইডে উড়িয়ে মারতে গিয়ে মিডউইকেটে দ্বাদশ খেলোয়াড় জেমস ভিন্সের হাতে ধড়া পড়ে ৪৬ রান করে ক্যারি সাজঘরে ফেরেন। একই ওভারে রশিদের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে রানের খাতা না খুলেই স্টইনিস প্যাভিলিয়নে ফিরলে ইংল্যান্ড ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয়। 

১১৮ রানে ৫ উইকেট পড়ে যাওয়ার পর গ্লেন মাক্সওয়েলকে নিয়ে ৩৯ রানের জুটি গড়ে ধাক্কা সামলানোর চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন স্মিথ। তবে ২২ রাম করা মাক্সওয়েল জোফরা আর্চারের স্লোয়ার বলে শর্ট কভারে ইয়ন মরগানের সহজ ক্যাচে পরিণত হয়ে মাঠ ছাড়েন। খানিকপর রশিদের বলে মাত্র ৬ রান করে প্যাট কামিন্স প্রথম স্লিপে জো রুটে হাতে ক্যাচ দিয়ে আসলে ১৬৬ রানের মাথায় ৭ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। 

এমন অবস্থায় নয় নম্বরে ব্যাট করতে নামা মিশেল স্টার্ক দারুণভাবে স্টিভেন স্মিথকে সঙ্গ দিয়ে যান। অষ্টম উইকেটে তারা ৫১ রান যোগ করে দলকে চরম বিপর্যয় থেকে উদ্ধার করেন। 

৪৮তম ওভারের প্রথম বলে ১১৯ বলে ৬ চারের মারে ৮৫ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলা স্টিভেন স্মিথ জস বাটলারের চমৎকার থ্রোতে রান পত হলে সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়ে মাঠ ছাড়েন। ক্রিস ওকসের করা পরের বলে ২৯ রান করা স্টার্ক আউট হন বাটলারের গ্লাভসে ধরা পড়ে। 

এরপর ৫০তম ওয়ানডে খেলতে মানা মার্ক উডের বলে বেহরেনডফ মাত্র ১ রান করে বোল্ড হলে ৬ বল বাকি থাকতে ২২৩ রানেই থামে অস্ট্রেলিয়া। ক্রিস ওকস ২০ রান দিয়ে এবং আদিল রশিদ ৫৪ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। এ ছাড়া, জোফরা আর্চার ২টি ও মার্ক উড নেন একটি উইকেট।

আরআইএস 
 

Islami Bank