• ঢাকা
  • রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ১৭, ২০২০, ১২:৪৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ১৭, ২০২০, ১২:৪৬ পিএম

বাংলাদেশে এশিয়া কাপ আয়োজনে পিসিবিকে প্রস্তাব দেবে বিসিবি

ক্রীড়া ডেস্ক
বাংলাদেশে এশিয়া কাপ আয়োজনে পিসিবিকে প্রস্তাব দেবে বিসিবি

সব অনিশ্চয়তা দূরে ঠেলে পাকিস্তান সফরে যাবে বাংলাদেশ। তাও তিন দফায় তিন ফরম্যাটেই খেলা হবে। কিন্তু কিছুদিন আগেও বিসিবির টেস্ট না খেলার ব্যাপারে যেই কঠোর অবস্থান ছিল তা দুবাইয়ে পিসিবি সভাপতি এহসান মানির সঙ্গে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বৈঠকেই শেষ হয়ে গেছে। কিন্তু এতে কী বিসিবির কোন লাভ নেই? 

আসন্ন এশিয়া কাপের আয়োজনের সত্ত্বেই পাকিস্তানে যেতে রাজি হয়েছে বাংলাদেশ, এমন গুঞ্জন ছড়িয়েছে ইতোমধ্যে। তবে বিসিবির সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন বাংলাদেশের পাকিস্তান সফরে যাওয়ার সঙ্গে এশিয়া কাপের কোন সম্পর্ক নেই। 

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এখানে কোন সম্পর্ক নেই এশিয়া কাপ ও পাকিস্তান সিরিজের মধ্যে। মিটিংয়ে কেবল পাকিস্তানের ভেন্যু পরিবর্তনের একটা ইস্যু এসেছিল। পাকিস্তান এশিয়া কাপের আয়োজক কিন্তু তারা সম্ভবত এটি আয়োজন করতে পারছেনা কারণ ভারত পাকিস্তানে যাবেনা।’

ভারতের কথা চিন্তা করে পিসিবি কিছু ম্যাচ নিরপেক্ষ ভেন্যুতে আয়োজন করার পরিকল্পনা করতে পারে। যা সত্যিকার অর্থেই ব্যয়বহুল ও অবাস্তব। ফলে এই সুযোগটাই বিসিবি নিতে চাইবে, পুরো আয়োজন নিজেদের মাটিতে নিয়ে আসার প্রস্তাব দিবে পিসিবিকে। নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘পাকিস্তান হয়তো এমন প্রস্তাব দিতে পারে তারা কিছু ম্যাচ পাকিস্তানে আয়োজন করবে আর বাকিগুলো ভারতের সুবিধার্থে দুবাই কিংবা মালেশিয়াতে। কিন্তু এটা কিছুটা অবাস্তবই বলা যায় কারণ এতে টুর্নামেন্টের দৈর্ঘ্য ও খরচ বাড়বে।’

আবার পাকিস্তান আয়োজন করতে ব্যর্থ হওয়ায় টুর্নামেন্টই যদি আলোর মুখ না দেখে বড় অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে পিসিবি। ফলে বিসিবি অবশ্যই প্রস্তাব দিবে রাজি হওয়া না হওয়া সম্পূর্ণ পিসিবির হাতে, ‘অবশ্যই (আমরা আয়োজনে আগ্রহী)। পাকিস্তান চাইবেনা এশিয়া কাপ আয়োজন না হউক। কারণ আয়োজন না হলে তাদের পড়তে হবে তিন মিলিয়ন ডলারের আর্থিক ক্ষতির মুখে। ফেব্রুয়ারিতে এসিসিএ সভায় ভেন্যু নিয়ে একটা আলোচনা হবে। যদি আমরা আয়োজনের আগ্রহ প্রকাশ করি তবে রাজি হবে কি হবে না সেটা তাদের সিদ্ধান্ত।’

এমএইচবি

আরও পড়ুন