• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬

জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

মুজিববর্ষ
প্রকাশিত: জানুয়ারি ২১, ২০২০, ১১:১৮ এএম
সর্বশেষ আপডেট : জানুয়ারি ২১, ২০২০, ১১:১৮ এএম

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে শারাপোভার বিদায়, দ্বিতীয় রাউন্ডে জোকোভিচ

ক্রীড়া ডেস্ক
অস্ট্রেলিয়ান ওপেন থেকে শারাপোভার বিদায়, দ্বিতীয় রাউন্ডে জোকোভিচ
পরাজয়ের পর হতাশায় ভেঙে পড়েন মারিয়া শারাপোভা (বামে), তবে জয় তুলে নিয়েছেন নোভাক জকোভিচ। ফটো : সংগৃহীত

বিশ্ব টেনিস র‍্যাংকিংয়ের সাবেক এক নম্বর তারকা মারিয়া শারাপোভা অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রথম রাউন্ডেই হেরে গিয়ে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছেন। পাঁচ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী এই রাশিয়ান তারকা ওয়াইল্ড কার্ড এন্ট্রির মাধ্যমে এ বছরের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশ নেয়ার সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারলেন না। 

মেলবোর্নের রড লেভার অ্যারেনায় অনুষ্ঠিত নারী এককের ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার ডোনা ভেকিচের কাছে ২-০ সেটে হেরে গিয়ে একরাশ হতাশা নিয়ে কোর্ট ছাড়েন শারাপোভা। প্রথম সেটে ৬-৩ গেমে হারের পর দ্বিতীয় সেটে তিনি ৬-৪ গেমে হারার ফলে এবারের আসর থেকে ছিটকে যান। 

ডোপ নেয়ার দায়ে ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে নিষিদ্ধ হন শারাপোভা। প্রায় ১৫ মাসের নিষেধাজ্ঞা শেষ করে তিনি কোর্টে ফেরেন। যদিও ঘনঘন ইনজুরিতে পড়ায় তার ক্যারিয়ার বাধাগ্রস্ত হয়। ১৩৬ নম্বর র‍্যাংকিংয়ে থেকে তিনি গত বছর শেষ করেছিলেন। পাঁচবারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী রুশ সুন্দরী শারাপোভা গত অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে চতুর্থ রাউন্ড পর্যন্ত যেতে পেরেছিলেন। ১২ বছর আগে ২০০৮ সালে তিনি এই টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেছিলেন। 

২০১৯ সালে শারাপোভা ইনজুরির কারণে ফ্রেঞ্চ ওপেন খেলতে পারেননি। একই বছর ইউএস ওপেনের প্রথম রাউন্ড থেকে তিনি বিদায় নেন। ২০২০ সালে ব্রিসবেন ইন্টারন্যাশনালে ওয়াইন্ড কার্ড এন্ট্রি পেয়ে খেলতে নামলেও কোয়ালিফায়ার প্রতিপক্ষের কাছে হেরে যান। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও শারাপোভা ব্যর্থতার বৃত্ত থেকে বের হতে পারলেন না।

পুরুষ এককে ১৬ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী জোকোভিচ জার্মানির ইয়ান-লেনার্ড স্ট্রাফকে ৭-৬ (৭-৫), ৬-২, ২-৬, ৬-১ গেমে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকেট কেটেছেন নোভাক জোকোভিচ। ২০০৬ সালের পর এই প্রথম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে প্রথম রাউন্ডে কোনো সেট জোকোভিচ হারলেও পরের ৩ সেটে ঠিকই জিতে নেন টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ সাতবারের চ্যাম্পিয়ন।  

এদিকে, নারী এককের আরেক ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের টেনিস তারকা ভেনাস উইলিয়ামসকে হারিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছেন তারই স্বদেশী কোরি কোকো গাফ। প্রথম সেটে টাইব্রেকারে ৭-৬ গেমে কষ্টার্জিত জয় পাওয়ার পর দ্বিতীয় সেটে ৬-৩ গেমে জয় তুলে নেন ১৫ বছর বয়সী এই আমেরিকান ‘ওয়ান্ডারগার্ল’। বিস্ময়কর বিষয় হলো গত বছর প্রথম রাউন্ডে ভেনাস উইলিয়ামসের মতো তারকাকে হারিয়ে কোরি কোকো গাফ সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। এবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও তার কাছে প্রথম রাউন্ডেই ধরা খেলেন ভেনাস।

অপর ম্যাচে স্বাগতিক দর্শকদের আনন্দে ভাসিয়ে পরের রাউন্ডে খেলা নিশ্চিত করেছেন এক নম্বর র‍্যাংকিংয়ে থাকা অ্যাশলে বার্টি। প্রথম সেটে তিনি ইউক্রেনের লেসিয়া সুরেনকোর কাছে ৭-৫ গেমে হারের পর কোর্টের ভেতর হতাশায় ভেঙ্গে পড়লেও পরের দুই সেট ৬-১ ও ৬-১ গেমে প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিয়ে পরের রাউন্ডে উঠে যান। 

২০১৯ সালে চেক প্রজাতন্ত্রের ক্যারোলিনা প্লিসকোভাকে হারিয়ে মিয়ামি ওপেনের নারী এককে চ্যাম্পিয়ন হয়ে আলোচনায় এসেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ঘরোয়া ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসর নারী বিগ ব্যাশে খেলা বার্টি। এরপর ফ্রেঞ্চ ওপেন জিতে তিনি প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ট্রফির মালিক হন। পরে উইম্বলডন ও ইউএস ওপেনে তিনি চতুর্থ রাউন্ড পর্যন্ত পথ পাড়ি দিতে পেরেছিলেন।

শৈশবে একজন নেটবল খেলোয়াড়ও ছিলেন বার্টি। ২০১৪ সালের ইউএস ওপেনের পর আচমকা টেনিস থেকে অবসর নিয়ে ক্রিকেটে মনযোগী হয়েছিলেন তিনি। দুই বছর ক্রিকেট মাঠে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন, বিগ ব্যাশ খেলেছেন ২০১৫ ও ২০১৬ সালে। ২০১৬ সালে তিনি আবারও ফিরে আসেন টেনিসে। 

আরআইএস 
 

আরও পড়ুন