• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল, ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০, ০৫:৩৪ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০, ০৫:৩৪ পিএম

বিশ্বজয়ী শাহাদাত-শরিফুল আলো ছড়ালেন প্রস্তুতি ম্যাচেও

ক্রীড়া ডেস্ক
বিশ্বজয়ী শাহাদাত-শরিফুল আলো ছড়ালেন প্রস্তুতি ম্যাচেও

ক’দিন আগেই জিতে এসেছেন বিশ্বকাপ। তবে সে আনন্দে বেশি দিন মেতে থাকার সুযোগ নেই বাংলাদেশের যুবাদের সামনে। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ছয় ক্রিকেটার নেমেছেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে। যেখানেও আলো ছড়িয়েছেন শাহাদাত হোসেন ও শরিফুল ইসলাম। 

বিকেএসপিতে এই ম্যাচে টসে জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় জিম্বাবুয়ে। ব্যাটিংয়ে নেমে দলটিকে দারুণ সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার প্রিন্স মাসভাউরে এবং কেভিন কাসুজা। প্রথম সেশনে কোনো উইকেট হারায়নি জিম্বাবুয়ে। প্রথম সেশনে বিসিবি একাদশের বোলারদের ধৈর্যের পরীক্ষা নেন জিম্বাবুয়ের ওপেনাররা।
 
শুরু থেকেই দারুণ খেলতে থাকা কাসুজা ১০০ বলে ৫১ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন। আরেক ওপেনার মাসভাউরে ৭৭ বলে ৪৫ রান করে আল আমিন জুনিয়রের বলে উইকেটের পেছনে আকবর আলীর হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন।

এরপর এই জুটি ভেঙে গেলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় বাংলাদেশের ছেলেরা। একে একে তারা তুলে নেয় আরও ৬ উইকেট। বিসিবি একাদশের অফ স্পিনার শাহাদাতের বোলিংয়েই সবচেয়ে বেশি ভুগেছেন জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। তিনি একাই নিয়েছেন ৩ উইকেট।

ক্রেইগ আরভিন ১০ রান করে শাহাদাতের বলে ক্যাচ দিয়েছেন সুমন খানের হাতে। ব্রায়ান মুদজিঙ্গানিমা ১৭ রান করে শরিফুল ইসলামের উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন আকবরের হাতে। রেগিস চাকাভা আউট হয়েছেন এলবিডব্লিউ হয়ে শাহাদাতের বলে। এরপর রানের খাতা খোলার আগেই টিনোটেন্ডা মুতোম্বোদজিকে একই কায়দায় ফেরান শাহাদাত।
 
টায়ার্ড হার্ট হয়ে ফিরে যাওয়া কাসুজা আবার ব্যাটিংয়ে নেমেও সুবিধা করতে পারেননি। ৭০ রান করে রান আউট হয়ে ফেরেন এই ব্যাটসম্যান। টিমিসেন মারুমা ৩৪ রান করে আল আমিনের বলে রিশাদ হোসেনকে ক্যাচ দিলে অল আউটের শঙ্কায় পড়ে জিম্বাবুয়ে।
 
এরপর জিম্বাবুয়েকে আর উইকেট হারাতে দেননি  কার্ল মাম্বা এবং  এইন্সলে এনদুলুভু। দুজনে অষ্টম উইকেটে গড়েছেন ৬৫ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি। আর তাতেই ৩ উইকেট হাতে রেখে দিন শেষ করে সফরকারীরা। মাম্বা ১০৫ বলে ৫৪ রান করে অপরাজিত আছেন। এনদুলুভু অপরাজিত আছেন ৪৪ বলে ২৫ রান করে।

এমএইচবি