• ঢাকা
  • রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০, ০৩:৫৬ পিএম
সর্বশেষ আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০, ০৬:৫৭ পিএম

কারা খেলবেন মুজিববর্ষের ‘বিশেষ’ সিরিজে, জানালেন পাপন

ক্রীড়া ডেস্ক
কারা খেলবেন মুজিববর্ষের  ‘বিশেষ’ সিরিজে, জানালেন পাপন

আগামী ১৭ মার্চ থেকে শুরু হবে মুজিববর্ষ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর এই বছরে আয়োজনের কমতি নেই পুরে দেশজুড়ে। যার থেকে বাদ যায়নি ক্রিকেটও। আগামী মাসেই ঢাকায় বিশ্ব ও এশিয়া একাদশের একটি সিরিজ আয়োজনের কথা ইতোমধ্যে নিশ্চিত হওয়া গেছে। 

যদিও এতদিন নিশ্চিত হওয়া যায়নি কারা খেলবেন তাতে। বেশ কয়েক বার কিছু নাম নিয়ে গুঞ্জন শোনা গেলেও নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছিল না এতদিন। অবশেষে মঙ্গলবার তার অবসান ঘটিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট শেষে নিশ্চিত করেছেন বেশ কিছু নাম। 

পাপন বলেন, ‘এখানে যেটা হয়েছে, খেলা হবে এশিয়া একাদশ বনাম বিশ্ব একাদশ। এশিয়াতে আমরা যেটা করেছি- ভারত থেকে চারটা নাম আমরা পেয়ে গিয়েছি, চুক্তি সাক্ষর হয়নি যদিও। চারজন হলো- রিশাভ পান্ত, কুলদ্বীপ যাদভ, শিখর ধাওয়ান এবং মোহাম্মদ শামি। আর লোকেশ রাহুলও বলছে এক ম্যাচ খেলবে। একটা ম্যাচ কোহলি, একটা ম্যাচ লোকেশ রাহুল- এধরনের কথাবার্তা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত এটা ফাইনাল হয়নি, তবে কেউ না কেউ খেলবে (কোহলি ও রাহুলের মধ্যে)। একটা ম্যাচ রাহুল খেলবে এটা বলেছে আমাদের।’

এশিয়া একাদশের স্কোয়াডে আফগানিস্তান ও নেপাল থেকেও ক্রিকেটার নেয়া হবে বলে জানান বিসিবি সভাপতি। তবে পিএসএলের কারণে খেলা হবে না পাকিস্তানের কোনো ক্রিকেটারের।

বিসিবি সভাপতির ভাষ্যে, ‘আমরা চিন্তা করছি আফগানিস্তান থেকে রাশিদ খান, মুজিব উর রহমান- এই দুজনকে নিয়ে কথা বলেছি। মোটামুটি ফাইনাল হয়েছে। নেপাল থেকে সন্দীপ লামিচানে, তার সাথে কথা হচ্ছে। শ্রীলঙ্কা থেকে আমি যতদূর জানি লাসিথ মালিঙ্গা ও পেরেরার সঙ্গে চূড়ান্ত হয়েছে কথাবার্তা।’

এ তো গেলো এশিয়ার বিদেশি খেলোয়াড়দের কথা। তাহলে বাংলাদেশ থেকে এশিয়া একাদশে খেলবেন কারা? এ দলে আগে থেকেই নিশ্চিত ছিলেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং মোস্তাফিজুর রহমান। আজ নতুন করে লিটন দাসের নাম জানালেন বিসিবি বিগ বস।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ থেকে আমরা ঠিক করেছি- যেহেতু দুইটি ম্যাচ আছে। যদি এক ম্যাচে বেশি প্লেয়ারকে খেলাতে নাও পারি তাহলে পরের ম্যাচে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খেলাবো। তামিম, মুশফিক তো কনফার্ম। এই ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই। এছাড়াও দুইজন আছে- একজন হলো মাহমুদউল্লাহ, আরেকজন মুস্তাফিজ।’

‘আরেকটা প্লেয়ারের থাকা নিয়ে আমাদের মধ্যে কথা হয়েছে- লিটন কুমার দাস, ওর ব্যাপারেও কথা হয়েছে। কে ওপেন করবে না করবে, পজিশনের ওপর নির্ভর করবে আসলে। আমাদের সবচেয়ে ভালো প্লেয়ার যে খেলবেই তা না। ঐ জায়গায় হয়তো অন্যদের আরেকটু বেটার প্লেয়ার আছে। সবমিলিয়ে আমাদের ৪-৫ জন খেলবে এটা নিশ্চিত। কে খেলবে সেটা সবার সাথে কথা শেষে কোচ-টোচ মিলে ঠিক করবে।’

এসময় বিশ্ব একাদশের সব খেলোয়াড়ের নাম মনে না থাকায়, সেগুলো বলতে পারেননি পাপন। তবে জানিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও দক্ষিণ আফ্রিকা থেকেই আসবেন সিংহভাগ ক্রিকেটার। এছাড়া ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া থেকেও কয়েকজনকে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

পাপন বলেন, ‘বিশ্ব একাদশের এতগুলা নাম বলতে পারব না। আমার দেখে দেখে বলতে হবে। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ৩-৪ জন আসছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে ৩-৪ জন আসছে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের ঐ সময় খেলা। তবুও বাইরে থাকা কারা আসতে পারে তা নিয়ে কথা হচ্ছে। ইংল্যান্ড থেকে জনি বেয়ারস্টো আসবে, দক্ষিণ আফ্রিকার ফাফ ডু প্লেসিস আছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল আছে।’

এশিয়া একাদশ স্কোয়াডঃ 

লোকেশ রাহুল, শিখর ধাওয়ান, তামিম ইসলাম, বিরাট কোহলি, লিটন দাস, রিশাভ পান্ত, মুশফিকুর রহিম, থিসারা পেরেরা, রশিদ খান, মুস্তাফিজুর রহমান, সন্দিপ লামিচানে, লাসিথ মালিঙ্গা, মোহাম্মদ শামি, কুলদীপ যাদব, মুজিব উর রহমান।

বিশ্ব একাদশ স্কোয়াডঃ 

কাইরন পোলার্ড, নিকোলাস পুরান, শেলডন কট্রেল, ক্রিস গেইল, ব্রেন্ডন টেলর, জনি বেয়ারস্টো, আদিল রশিদ, অ্যালেক্স হেলস, ফাফ ডু প্লেসিস, লুঙ্গি এনগিডি, অ্যান্ড্রু টাই, মিচেল ম্যাকলেনেঘান।

এমএইচবি