• ঢাকা
  • শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২০, ১৫ কার্তিক ১৪২৭
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০, ০৯:৫৫ এএম
সর্বশেষ আপডেট : সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২০, ০৯:৫৫ এএম

নাটকীয় ম্যাচে জয় পেল বেঙ্গালুরুর, জয়ের নায়ক কোহলি

জাগরণ ডেস্ক
নাটকীয় ম্যাচে জয় পেল বেঙ্গালুরুর, জয়ের নায়ক কোহলি

চলিত মৌসুমে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) রোমাঞ্চকর আরো একটি ম্যাচ দেখল ক্রিকেটপ্রেমীরা।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতের ম্যাচটিতে সুপার ওভারে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়েছে বেঙ্গালুরু। ম্যাচের নির্ধারিত ওভারে কোনো ফল আসেনি। সুপার ওভারেও ম্যাচ গড়াচ্ছিল ড্রয়ের দিকে। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে এমন শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শেষ বলের বাউন্ডারিতে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে জয় উপহার দেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

সুপার ওভারে বেঙ্গালুরুর নায়ক সাইনি। তাঁর দারুণ বোলিংয়ে কেবল ৭ রান করতে পারে মুম্বাই। জবাব দিতে নেমে জাসপ্রিত বুমরাহর ওভারে শেষ বলে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন কোহলি। মাত্র ২৪ বলে ৫৫ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন এবি ডি ভিলিয়ার্স।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ৩ উইকেটে ২০১ রান করে বেঙ্গালুরু। ওপেনিং জুটিতে দারুণ শুরু এনে দেন পাড্ডিকাল ও অ্যারন ফিঞ্চ। দুজন মিলে গড়েন ৮৪ রানের জুটি। নবম ওভারে ফিঞ্চকে ফিরিয়ে জুটি ভাঙেন বোল্ট। ৩৫ বলে ৫৩ রান করে ফেরেন অসি তারকা।

বিরাট কোহলি এদিনও ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন। ১১ বল মোকাবিলা করে মাত্র ৩ রানে ফেরেন তিনি। এরপর বাকি কাজ সেরেছেন ডি ভিলিয়ার্স ও দুবে। তাতে নির্ধারিত ওভারে মুম্বাইকে ২০২ রানের লক্ষ্য দেয় বেঙ্গালুরু। ১০ বলে ২৭ রান করেন দুবে।

জবাব দিতে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। হারায় ওপেনার ডি কক ও রোহিত শর্মাকে। চাপে পড়া মুম্বাইকে উদ্ধার করেন ইশান কিষান ও কাইরন পোলার্ড। পোলার্ড শুরুতে ছিলেন শান্ত। প্রথম ১০ বলে ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডারের রান ছিল ১১। কিন্তু শেষ ৪ ওভারে ৭৯ রান নিয়ে ম্যাচ সুপার ওভারে নেওয়ায় তাঁর অবদানই বেশি। শেষ পর্যন্ত ২৪ বলে ৬০ রান করেন পোলার্ড। আর মাত্র ৫৮ বলে ৯৯ রান করেন কিষান। এক রানের জন্য সেঞ্চুরি হাত ছাড়া হয় তাঁর। তবে এত চেষ্টা করেও রক্ষা হয়নি। সুপার ওভারের রোমাঞ্চে ম্যাচ জিতে নেয় বিরাট কোহলির দল।

উল্লেখ্য, এর আগেও গত ২০ সেপ্টেম্বর আসরের দ্বিতীয় ম্যাচও গড়িয়েছিল সুপার ওভারে। যেখানে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে হারিয়েছিল দিল্লি ক্যাপিটালস।

জাগরণ/এমআর